Logo
শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ | ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

হস্তান্তরিত মিলগুলো সুষ্ঠু পরিচালনায় সরকারের সহায়তা কামনা

প্রকাশের সময়: ৯:৩২ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮

তৃতীয় মাত্রা :

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় ২০০১ সালের ২১ মার্চ শ্রমিক-কর্মচারীদের ব্যবস্থাপনায় হস্তান্তরিত বস্ত্রকলগুলো সুষ্ঠু পরিচালনার জন্য সরকারের সহায়তা চেয়েছেন মিলগুলোর সমন্বয় পরিষদের নেতারা। গতকাল শিল্পমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে এ আহ্বান জানান তারা।

বৈঠকে নেতারা বলেন, উন্নত ব্যবস্থাপনার জন্য ২০০১ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় নয়টি বস্ত্রকল শ্রমিক-কর্মচারীদের মালিকানায় হস্তান্তর করা হয়েছিল। কিন্তু পরবর্তী সময়ে সরকারের আমলে বিমাতাসুলভ আচরণের কারণে এগুলো ধীরে ধীরে অলাভজনক ও রুগ্ণ শিল্পে পরিণত হয়। বৈঠকে হস্তান্তরিত বস্ত্রকলগুলোয় বিদ্যমান সমস্যা ও সেগুলো সমাধানের উপায় নিয়ে আলোচনা হয়। এ সময় পরিষদের নেতারা বলেন, সুষ্ঠু পরিচালনার স্বার্থে শ্রমিক-কর্মচারীদের পক্ষ থেকে মিলগুলোকে বিএমআরই ও ব্যাংকঋণ প্রদানের প্রস্তাব দেয়া হলেও বিএনপি সরকারের আমলে তা প্রত্যাখ্যাত হয়েছে। ফলে বস্ত্রকলগুলো ধীরে ধীরে লোকসানি প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। তারা মিলগুলো সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য ২০১৪ সালের অক্টোবরে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় পরিদর্শনকালে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া নির্দেশনা দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানান।

জবাবে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার শ্রমিকবান্ধব সরকার। এরই মধ্যে পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ৮ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। শ্রমিকদের মালিকানা ও অধিকার প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে নয়টি বস্ত্রকল শ্রমিক-কর্মচারীদের ব্যবস্থাপনায় ছেড়ে দিয়ে অনন্য নজির স্থাপন করেছিলেন। তিনি এসব বস্ত্রকলের বাস্তব সমস্যাগুলো সুনির্দিষ্টভাবে লিখিত আকারে তুলে ধরার জন্য নেতাদের পরামর্শ দেন। এর ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও সংস্থার সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার কার্যকর সমাধানের আশ্বাস দেন মন্ত্রী।

বৈঠকে শিল্প মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আবদুল হালিম, অতিরিক্ত সচিব মো. এনামুল হক, বাংলাদেশ বস্ত্র ও পোশাক শিল্প শ্রমিক লীগের সভাপতি জেডএম কামরুল আনাম, সুতা ও বস্ত্র কল্যাণ শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি বদরুল আলম খান লাভলু, নিউ ঢাকা কটন মিলসের প্রতিনিধি আবুল কাসেম পাটোয়ারী ও মোখলেছুর রহমান, নিউ অলিম্পিয়া টেক্সটাইলের প্রতিনিধি মতিউর রহমান, নিউ মেঘনা টেক্সটাইলের প্রতিনিধি নূরুল ইসলাম ও জাহিদ আল মামুন, নিউ মুন্নু ফাইন কটন মিলসের প্রতিনিধি মিজানুর রহমান ও হারুনুর রশিদ, মডার্ন পাইলন ইন্ডাস্ট্রিজের প্রতিনিধি আব্দুল মাজেদ চৌধুরী এবং মডার্ন ন্যাশনাল কটন মিলের প্রতিনিধি মো. সফি ও কানু রাম বৈদ্য উপস্থিত ছিলেন। বণিক বার্তা

Read previous post:
কাঁচা রসুনের ব্যতিক্রম ব্যবহার

তৃতীয় মাত্রা : আমাদের প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় রসুন থাকবেই। রসুনের উপকারিতা এবং রান্নায় এর ব্যবহারের কথা সবারই জানা। হৃৎপিণ্ড ভালো রাখতে...

Close

উপরে