Logo
মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম

উদ্বোধনের আগেই ধ্বসে পড়ল ২য় তিস্তা সেতুর সংযোগ সড়ক!

প্রকাশের সময়: ৪:৩১ অপরাহ্ণ - শুক্রবার | সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮

তৃতীয় মাত্রা

নিয়াজ আহমেদ সিপন, লালমনিরহাট: যোগাযোগসহ ব্যবসা- বাণিজ্য বৃদ্ধির লক্ষ্যে আর্ন্তজাতিক ব্যবসায়ীক রুট বুড়িমারী স্থলবন্দরের সাথে রাজধানী ঢাকা ও বিভাগীয় শহর রংপুরের দুরুত্ব কমিয়ে আনতে তিস্তা নদীর উপর ‘কাকিনা-মহিপুর’ ঘাটে ২য় তিস্তা সড়ক সেতু তৈরীর কার্যক্রম ইতোমধ্যেই সম্পন্ন করেছে সকার। কথা ছিল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ১৬ সেপ্টেম্বর এ সেতুটি উদ্বোধন করবেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু বৃহস্পতিবার দিবাগত মধ্যরাতে সেতুর উত্তর পাশে ইচলী এলাকায় সংযোগ সড়করের ব্রীজ ধ্বসে পড়ে।

জানা গেছে, নির্মান ব্যায় ৩ গুণ বৃদ্ধি করেও ২য় তিস্তা সড়ক সেতুর সংযোগ উদ্বোধনের আগেই ধ্বসে পড়ায় বিস্মিত স্থানীয়রা, জনমনে দানা বাঁধছে সেতুটির নির্মান কর্তৃপক্ষের প্রতি অনাস্থা। লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনা ইউনিয়নের রুদ্বেশ্বর ও রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার লক্ষীটারী ইউনিয়নের মহিপুর এলাকায় তিস্তা নদীর উপর ২০১২ সালে ১২ এপ্রিল এ সেতুর নির্মান কাজের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ইতোমধ্যে সেতুর কাজ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স নাভানা কন্সট্রাকশনের কাছে বুঝে নিয়েছেন বাস্তবায়নকারী কালীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশল দফতর। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় ৩০ মিনিটে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সেতুটি উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সে জন্য সেতুর উত্তর পাশ্বে মঞ্চ প্রস্তুতের কাজ চলছে। এরই মাঝে বৃহস্পতিবার রাতে সেতুর সংযোগ সড়কের ইচলী এলাকার একটি ব্রীজের মোকা ধ্বসে পড়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। বর্তমানে নৌ পথে চলাচল করছে যাত্রীরা।

এর আগেও এই ব্রীজের মোকা ধ্বসে পড়লে জোড়াতালি দিয়ে সংস্কার করে সংশ্লিষ্ট দফতর।

কালীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় জানান, ১২৩ কোটি ৮৬লাখ টাকা ব্যায়ে ৮৫০ মিটার দৈর্ঘ্য ও ফুটপাতসহ ৯ দশমিক ৬ মিটার প্রস্থ্যের দ্বিতীয় তিস্তা সড়ক সেতুতে ১৬টি পিলার, ২টি এপার্টমেন্ট, ১৭টি স্প্যানে ৮৫টি গার্ডারের উপর সেতুটির নির্মিত। একই অর্থে সেতুটি রক্ষার জন্য উভয় পাশ্বে ১৩০০ মিটার নদী শাসন বাঁধ নির্মান করা হয়েছে। সেতুর সাথে লালমনিরহাট বুড়িমারী মহাসড়কের কাকিনা থেকে সেতু পর্যন্ত ৫.২৮০ কিলোমিটার সড়ক নির্মানে দুইটি প্যাকেজে ৪ কোটি ৪৬ লাখ এবং এ সড়কে ২টি ব্রীজ ও তিনটি কালভার্ট নির্মানে ৩টি প্যাকেজে ৯ কোটি ৯১ লাখ টাকা ব্যায় হয়। সেতু থেকে রংপুরের অংশে ৫৬৩ মিটার সড়ক নির্মানে ব্যায় হয় এক কোটি ৪২ লাখ টাকা।

 

সড়ক নির্মানে প্রতি কিলোমিটারে এক কোটি টাকা ব্যায় ধরা হলেও এই ৫ কিলোমিটার সড়কে তিন দফায়  তিনগুণের অধিক মোট ১৬ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ব্যায় করেও কাজে আসছে না। ধ্বসে পড়া থেকে ব্রীজ রক্ষা করতে পুনরায় ৩ কোটি ১০ লাখ টাকা বরাদ্ধ দেয়া হয়।

এ সংস্কার কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কামাল অ্যাসোসিয়েট স্থানীয় প্রভাবশালী সরকার দলীয় নেতাদের ছায়া ঠিকাদার নিয়োগ করে কাজ শুরু করেন। কাজ শেষ না হতেই বৃহস্পতিবার রাতে ইচলী এলাকার ব্রীজের মোকা ধ্বসে পড়লে স্থানীয়রা বালুর বস্তা ফেলে পানির স্রোত রক্ষা করলেও যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে যবত্রী-পথচারীরা। নিম্নমানের কাজের কারনে উদ্বোধনের ২ দিন আগেই ধ্বসে পড়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে বলে স্থানীয়দের দাবি।

স্থানীয়রা জানান, সংযোগ সড়ক নির্মানের শুরু থেকে কাজের মান নিয়ে অভিযোগ করেও সুফল মেলেনি স্থানীয়দের।নিম্নমানের কাজ ঢাকতে চার দফায় সংস্কার করেও চলাচলের উপযোগি করতে পারছেন প্রকৌশল দফতর। নদী শাসনের ১৩শত মিটার বাঁধ অপরিকল্পিত ভাবে নির্মান করায় নদীর গতিপথ পরিবর্তন হয়েছে বলে দাবি স্থানীয়দের। তিস্তার মুল স্রোত ধারা সেতু হয়ে না গিয়ে লোকালয় ভেঙ্গে এ ৫ কিলোমিটার সংযোগ সড়ক ও ব্রীজ কালভার্ট ভেঙ্গে যাচ্ছে। এ সড়কটি ভেঙ্গে যাওয়ায় উদ্বোধনের আগেই তিস্তা দ্বিতীয় সড়ক সেতুটি অকার্জকর হয়ে পড়েছে।

সেতু এলাকার কামরুজ্জামান, শরিফুল ইসলাম ও মোক্তারুল ইসলাম জানান, নাম মাত্র কাজ দেখিয়ে এ প্রকল্পের অর্থে ঠিকাদার দলীয় নেতাকর্মী ও প্রকৌশলীদের পকেট মোটা হয়েছে। প্রতিবাদ করলে চাঁদাবাজি মামলায় গ্রেফতারে হুমকী দিত। নিম্নমানের কাজের কারনে উদ্বোধন হওয়ার আগেই ধ্বসে পড়েছে সংযোগ সড়ক ফলে উদ্বোধনী মঞ্চে প্রধানমন্ত্রীর যাওয়ার উপায় নেই বলেও মন্তব্য করেন তারা।

 

কালীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী পারভেজ নেওয়াজ খান জানান, নদী প্রতিমুহুর্তে তার গতিপথ পরিবর্তন করে থাকে। সেতু নির্মানের পরিকল্পনা সময়ের গতিপথ অনুযায়ী সেতু ও নদী শাসন বাঁধ নির্মান করা হয়েছে। এখন কোন ভাবে নদী গতিপথ পরিবর্তন করেছে। এটার তার দায় নয়। উল্টো পানি উন্নয়ন বোর্ডের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক শফিউল আরিফ বলেন উদ্বোধনী অনুষ্ঠান যথা সময়ে হবে। ধ্বসে যাওয়া অংশে দ্রুত মেরামত বা সাময়িক যোগাযোগের জন্য ব্যবস্থা করতে প্রকৌশল বিভাগ কাজ করছে।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
Read previous post:
ভারতের জম্মু ও কাশ্মীরের মিনিবাস খাদে পড়ে ১৩ যাত্রী নিহত

তৃতীয় মাত্রা : ভারতের জম্মু ও কাশ্মীরের কিশতয়ার জেলায় একটি মিনিবাস খাদে পড়ে ১৩ যাত্রী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত...

Close

উপরে