Logo
মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ঈদে মাংসের সাথে রইল ১২ পদ সালাদ

প্রকাশের সময়: ১২:৪৪ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | আগস্ট ২৩, ২০১৮

তৃতীয় মাত্রা :

কুরবানির ঈদে আপনি না চাইলেও মাংসের নানা পদ খাওয়া হবেই। আর না খেয়েও উপায় নেই। বাড়িতে এতো আয়োজন না খেয়ে আর কি করার আছে। তবে মাংস খাওয়া নিয়ে আমাদের অনেক রকম চিন্তা থাকে। ওজন বাড়া এবং মেদ বাড়ার চিন্তা তো আছেই। তবে যদি আপনি মাংস খাওয়ার সাথে যদি নানা ধরনের সালাদ রাখেন তাহলে আপকে আর স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তা করতে হবে না। আসুন তাহলে জেনে নিন ১২ পদের সালাদের রেসিপি।

১. ফ্রুট চিজ সালাদ

উপকরণ :

চিজ, কিউব করে কাটা ১ কাপ।

আনারস কিউব ২ কাপ।

শসা কিউব ২ কাপ।

পিচ ফল কাটা আধা কাপের একটু কম।

গাজর আধা কাপ।

চাট মসলা ১ টেবিল-চামচ।

অলিভ অয়েল ১ চা-চামচ।

মধু ১ চা-চামচ।

লবণ স্বাদমতো।

(এছারাও আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী ফল ব্যবহার করতে পারেন)

প্রণালি : সবার প্রথম সব ফল আস্ত অবস্থা ভালোভাবে ধুয়ে পানি জড়িয়ে নিন। তারপর যেসকল ফল ছিলতে হবে বা খোসা ছাড়াতে হবে তা করে নিন। এবার ফলগুলো কিউব করে অথবা আপনার পছন্দ অনুযায়ী সাইজে কেটে একটা বাটিতে নিন। সব ফল একসঙ্গে একটি বাটিতে নিয়ে তাতে তেল দিয়ে ভালো করে মাখান। এরপর চাট মশলা, লবণ আর মধু মেশান। যে পাত্রে পরিবেশন করবেন তাতে ঢেলে উপর দিয়ে চিজ কিউবগুলো দিয়ে দিন। লেটুসপাতা দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

২. থাই সালাদ

উপকরণ :

কাঁচা পেঁপে দেড় কাপ (চিকন ঝুরি ঝুরি হবে)

চেরি টমেটো ৮-১০ টি (দুই ফালি করে কেটে নিন। এটা না পেলে রেগুলার টমেটো ব্যবহার করুন)

গাজর ১/৪ কাপ (ছবি দেখে কেটে নিন)

বরবটি ২ টি লম্বা পিস করা

কাজু বাদাম অল্প কয়েকটা (অথবা আপনার পছন্দ অনুযায়ী)

ফিস সস ২ টেবিল চামচ

লেবু ২টি

ব্রাউন সুগার ২ টেবিল চামচ (যারা ডায়েট করবেন তারা যতটা সম্ভব কম দিন কিংবা দেবেন না)

লাল কাঁচা মরিচ ৩-৪টি স্বাদ মতো কম বেশি হতে পারে

রশুন ৩-৪ কোয়া

প্রণালি : প্রথমে একটি রশুন আর কাঁচা মরিচকে হাল্কা করে ছেঁচে নিন।

এরপর ফিশ সস, লেবুর রস, চিনি, টমেটো, বর বটি হাল্কা ভাবে আবারো ছেঁচে নিন। খেয়াল রাখবেন যেন বেশি ছেঁচা না হয়। এরপর পেঁপে এবং গাজর দিয়ে আবারো ছেঁচে নিন। ভালভাবে সব কিছু মিক্স করে নিন। প্লেটে পরিবেশন করুন। উপর দিয়ে বাদাম ছড়িয়ে দিন।

৩. ফলের চাট রেসিপি

উপকরণ :

আনার, পাকা পেঁপে, কলা, পেয়ারা, আম, আঙ্গুর, নাশপাতি, আপেল ইত্যাদি ফল সমানভাবে কিউব করে কাটা -দুই কাপ

লেবুর রস ১ টেবিল চামচ অথবা একটি মাল্টার রস

চাট মসলা ১ চা চামচ,

জিরো ক্যাল -১ টি স্যাসে বা চিনি ২ চা চামচ(ইচ্ছা–যদি ডায়বেটিস বা ওজনের সমস্যা না থাকে)

লবণ আধা চা চামচ/স্বাদমতো

কাবুলি চানা ১ কাপ(ইচ্ছা)

ভাজা তিল ১ চা চামচ(ইচ্ছা) অথবা ভাজা চিনাবাদাম –এক টেবিল চামচ (ইচ্ছা)

পুদিনা পাতা –এক টেবিল চামচ

প্রণালি : সব ফল সমান আকারে কিউব করে কাটুন। আনার ছাড়িয়ে দানা বের করে নিন| কাবুলি চানা লবণ দিয়ে ভালোভাবে সেদ্ধ করে নিন। এবার সব ফল ও চানা, লবণ, চিনি, চাট মশলা, লেবুর রস বা মাল্টার রস দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে ফ্রিজে রাখুন| ১-২ ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে নিন। ফ্রিজ থেকে বের করে পরিবেশনের আগে চাইলে ভাজা তিল/ভাজা চিনা বাদাম ও পুদিনা পাতা ওপরে ছড়িয়ে দিয়ে পরিবেশন করুন।

৪. কিমা সালাদ

উপকরণ :

কিমা ২৫০ গ্রাম (খাসির বা গরুর),

ভিনেগার ১ টেবিল-চামচ,

আদাবাটা আধা চা-চামচ,

রসুনবাটা আধা চা-চামচ,

গোলমরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ,

শুকনা মরিচের গুঁড়া আধা চা-চামচ,

লবণ স্বাদ মতো, পানি দেড় কাপ।

ওপরের সব উপকরণ দিয়ে কিমা সেদ্ধ করে পানি শুকিয়ে নিতে হবে।

সালাদের জন্য যা যা লাগবে :

পানি ঝরানো টক দই ১ কাপ,

আপেল কিউব ১ কাপ,

শসা কিউব আধা কাপ,

পুদিনাপাতা কুচি ১ টেবিল-চামচ,

ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল-চামচ,

টমেটো কিউব আধা কাপ,

গাজরের কিউব আধা কাপ,

কাঁচা মরিচের কুচি (বিচি ফেলে নেওয়া) ১টা,

ধনেপাতা কুচি ২ টেবিল-চামচ,

লেবুর রস ১ টেবিল-চামচ,

লবণ স্বাদ মতো, চিনি স্বাদ মতো,

গোলমরিচের গুঁড়া স্বাদ মতো,

তেঁতুলের চাটনি ১ টেবিল-চামচ।

প্রণালি : দইয়ের সঙ্গে পুদিনাপাতা, ধনেপাতা, লেবুর রস, লবণ, চিনি, গোলমরিচ, তেঁতুলের চাটনি দিয়ে মিলিয়ে ঠাণ্ডা (ঠাণ্ডা পরিবেশন) করে নিতে হবে। পরিবেশনের আগে দইয়ের মিশ্রণ দিয়ে কিমা সেদ্ধ, আপেল, শসা, গাজর, টমেটো ও কাঁচা মরিচের কুচি মিলিয়ে নিতে হবে। এবার সার্ভিং ডিশে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

৫. দই সালাদ

উপকরণ :

টক দই/মিষ্টি দই ২৫০ গ্রাম

ফল ৫০০ গ্রাম (কলা, আপেল, আঙুর, কমলা, পেপে, আনার, কিসমিস ইত্যাদি)

মধু দুই টেবিল চামচ

গোল মরিচের গুঁড়ো (পরিমাণ মতো)

লবণ পরিমাণ মতো

জিরা গুঁড়ো ১/২ চা চামচ

বাদাম (ইচ্ছা)

প্রণালি: সব ফল ধুয়ে কিউব করে কেটে নিন। এবার ফলের সাথে সব উপকরণ ভালো করে মাখিয়ে নিন। বাটিতে ঢেলে পরিবেশন করুন দই-ফলের সালাদ।

৬. ডিমের সালাদ

উপকরণ:

সেদ্ধ ডিম ২টি,

টমেটো ১টি  কুচি করে কাটা,

পিঁয়াজ কুচি ১টি,

ধনেপাতা কুচি ১টেবিল চামচ,

লবণ স্বাদ মতো,

গোলমরিচ গুঁড়া ১চা চামচ,

অলিভ ওয়েল ১টেবিল চামচ।

প্রণালি :

১.ডিমকে লম্বালম্বিভাবে চারটুকরো করে কেটে নিন।( চাইলে আপনার ইচ্ছা মতো পিস করতে পারেন)

২.কড়াইতে ডিমের টুকরোগুলো স্যালোফ্রাই (অল্প তেলে ভেজে) করে নিন।

৩.এরপর তেল কড়া গরম করে টমেটো, পিঁয়াজ, লবণ, গোলমরিচ গুঁড়ো দিয়ে ভেজে নিন।

৪. প্লেটে ডিমের টুকরোগুলো রেখে চারপাশে টমেটো-পিঁয়াজ ভাজা ও ধনেপাতা কুচি, লেটুস পাতা কিংবা লেবু-শশার টুকরো দিয়ে পরিবেশন করুন।

৭. টেস্টি ভেজ

উপকরণ:

নিজের পছন্দ মতো যেকোনো সবজি নিন। নিতে পারেন- বাধাকপি কুচি দেড় কাপ ব্রকলি ১ কাপ ( শুধু ফুলটা নিতে হবে)

রবটি ১ কাপ গাজর ছোট ২ টি লম্বা করে কেটে নিতে হবে মাশরুম ১/২ কাপ .

পেঁয়াজ বড় একটি (চারকোনা করে কেটে ভাঁজ খুলে নেয়া)

রসুন কুচি দেড় চাচামচ

আদা বাটা ১/২ চাচামচ

কর্নফ্লাওয়ার ১ চা চামচ

সয়া সস ১ চাচামচ

ওয়েস্টার সস ১ চা চামচ

লবণ স্বাদমত(সয়াসস এ লবণ থাকে তাই লবণ অল্প দিতে হবে)

অলিভ অয়েল দেড় টেবিল চামচ (ডায়াবেটিস রোগীদের মধ্যে যারা ডায়েট করছেন তারা তেলের পরিমাণ আরো কমিয়ে দেবেন)

প্রণালি: সব সবজি একটি ওভেনপ্রফ বাটিতে নিয়ে ৫ মিনিট মাইক্রোওয়েভে বয়েল করে নিতে হবে অথবা চুলায় গরম পানিতে কিছুক্ষণ রেখে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে।

-প্যানে তেল দিয়ে পেঁয়াজ, গাজর দিয়ে ২-৩ মিনিট ভাজতে হবে।

-আদা বাটা দিয়ে কিছুক্ষণ নেড়ে সব সবজি দিয়ে মিডিয়াম হাই হিটে ৭-৮ মিনিট ভাজতে হবে।

-ছোট একটি বাটিতে কর্নফ্লাওয়ার এর সাথে সয়া সস এবং ওয়েস্টার সস দিয়ে ভালো মতো মেশাতে হবে। সবজি কিছুটা হয়ে আসলে কর্নফ্লাওয়ার দিয়ে ভালো মতো মিশিয়ে ২-৩ মিনিট রেখে লবণ চেখে নামাতে হবে।

যারা ডায়াবেটিসে ডায়েট করছেন তারা এই খাবারটি খেতে পারবেন পেটপুরে, ওজন বাড়ার কোনো চিন্তা না করেই।

৮. ক্রিমি ফ্রুট সালাদ

উপকরণ:

আপেল ১টা

আঙ্গুর ১ কাপ

কলা ১টা

অ্যাভোকাডো ১টা

পিয়ার্স ১টা

টক দই ১/২ কাপ থেকে সামান্য কম

মেয়োনিজ ১/২কাপ

ফ্রেশ ক্রিম ২/৩ টেবিল চামচ

চিনি ১ টেবিল চামচ

কয়েকফোটা মধু (অপশনাল )

লবণ স্বাদ মতো

ব্ল্যাক পিপার ১ টেবিল চামচ

প্রণালি: প্রথমেই ফলগুলো খোসা ছাড়িয়ে কিউব করে কেটে নিতে হবে। আপনারা চাইলে পছন্দমতো যে কোনো ফল কমিয়ে বাড়িয়ে নিতে পারেন। একটা বড় বলে সব উপকরণ মিশিয়ে নিয়ে ফলের কিউবগুলো সুন্দর করে মিক্সড করে নিন। ব্যাস হয়ে গেল মজাদার হেলথি ক্রিমি ফ্রুট সালাদ।

৯. রাশিয়ান সালাদ

উপকরণ :

গাজর সেদ্ধ কিউব করে কাটা ৫০ গ্রাম।

আলু সেদ্ধ কিউব করে কাটা ৫০ গ্রাম।

পেয়াঁজ কলি ছোট ছোট টুকরো করে কাটা ৫০ গ্রাম।

শিমের বিচি ১৩-১৫টা।

ম্যাকারনি সেদ্ধ এক কাপ।

আপেল কিউব কাট এক কাপ(সেদ্ধ)।

আনারস কিউব কাট এক কাপ (সেদ্ধ)

অলিভ পাঁচটি।

লবণ পরিমাণ মতো।

গোলমরিচ গুড়া সামান্য।

চিনি দুই চা চামচ বা টেস্ট অনুযায়ী।

লেবুর রস এক টেবিল চামচ।

মেয়োনিজ চার টেবিল চামচ।

মিল্ক ক্রিম এক টেবিল চামচ (না থাকলে গুড়ো দুধ এক চামচ বা কনডেন্সন্ড মিল্ক এক চা চামচ, এক্ষেত্রে চিনি একটু কম দিবেন)

আপনি চাইলে আপনার পছন্দ মতো মৌসুমি ফল ব্যবহার করতে পারবেন।

প্রণালি: সব সবজিগুলো কিউব করে কেটে অল্প লবণ দিয়ে সেদ্ধ করে নিন। ম্যাকারনি নুডলস সেদ্ধ করে আলাদা করে রাখুন। এবার একটি পরিষ্কার পাত্রে সব উপকরণগুলো এক সাথে মিশিয়ে নিন।

ব্যাস তৈরি হয়ে গেল মজাদার রাশিয়ান সালাদ।

১০. টাংরি চিকেন সালাদ

উপকরণ :

মুরগির বুকের মাংস (লেয়ার করে কাটা) ২ টুকরা

রসুন (কিমা) ১ টে চামচ

বেসিল লিফ সস ১ চা চামচ

লেটুস পাতা পরিমাণ মতো

সেলারি পাতা পরিমাণ মতো

তেল ১ টে চামচ

শসা (বিচি ফেলে পাতলা লম্বা স্লাইস) ১/৩ কাপ

টমেটো (বিচি ফেলে পাতলা লম্বা স্লাইস ) ১/৩ কাপ

লেবুর রস ১ ফালি

আদা জুলিয়ান কাট বা চিকন লম্বা করে কাটা ৮-৯ টি টুকরা

ধনেপাতা কুচি ১/২ চা চামচ

লবণ ১/২ চা চামচ

প্রণালি : মুরগির বুকের মাংস, রসুন কিমা, ১ টে. চামচ বেজিল লিফ সস মাখিয়ে ৬ মিনিট ভেজে লম্বা করে কাটুন। সালাদের সব উপকরণ একসাথে মিশিয়ে ভাজা মাংস দিয়ে ভালোভাবে মেখে পরিবেশন করুন।

১১. তন্দুরি প্রণ সালাদ

প্রণালি:

চিংড়ি ১ কাপ,

টক দই ১ চা চামচ,

লেবুর রস ১ চা চামচ,

কালো গোলমরিচ ১/৪ চা চামচ,

ব্রাউন সুগার ১/৪ চা চামচ,

আদাবাটা ১/৪ চা চামচ,

রসুনবাটা ১/৪ চা চামচ,

ডিমের সাদা অংশ ১ টেবিল চামচ,

কর্নফ্লাওয়ার ১ চা চামচ,

পাপরিকা ১/৪ চা চামচ,

তন্দুরি মশলা ১/৪ চা চামচ,

রুচির চিলি সস ১ টেবিল চামচ,

ধনেপাতা ১ টেবিল চামচ,

কাঁচামরিচ ১ চা চামচ,

টক দই ১ টেবিল চামচ,

সরিষার তেল ১ টেবিল চামচ,

চিলি ফ্লেক্স ১ টেবিল চামচ,

লবণ স্বাদ মতো,

তেল পরিমাণ মতো,

সবজি (শসা,গাজর, টেমেটো) ১ কাপ।

প্রণালি : চিংড়ি মাছের সঙ্গে টক দই, লবণ, লেবুর রস, কালো গোলমরিচ, ব্রাউন সুগার, আদাবাটা, রসুনবাটা, ডিমের সাদা অংশ, কর্নফ্লাওয়ার, পাপরিকা, তন্দুরি মশলা ও চিলি সস দিয়ে ভালো করে মেখে মেরিনেট করে নিন। এবার প্যানে তেল গরম করে মেরিনেট করা চিংড়ি ভেজে লাল করে নিন। এবার ভাজা চিংড়িগুলো কেটে নিয়ে একটি বাটিতে ঢেলে কেটে রাখা মিক্সড সবজিগুলো দিয়ে একটু টস করে তার মধ্যে লবণ, কাঁচামরিচ, ধনেপাতা, টক দই, সরিষার তেল, গোলমরিচ গুঁড়া, লেবু, চিলি ফ্লেক্স, চিলি সস দিয়ে মাখিয়ে নিন। মাখানো হয়ে গেলে উঠিয়ে পরিবেশন করুন তন্দুরি প্রণ সালাদ।

১২. ক্যাশনাট সালাদ

উপকরণ:

মুরগির বুকের মাংস ১ পিস

চিংড়ি মাছ (লম্বায় দেড় ইঞ্চির মত) ১/২ কাপ

আদা বাটা ২ চা চামচ

লাইট সয়া সস ২ টেবিল চামচ

ফিস সস ১/২ চা চামচ

লবণ স্বাদ মতো,

তেল ভাজার জন্য।

সসের জন্য:

টমেটো সস ১/৪ কাপ,

পেঁয়াজ কুচি ১/৪ কাপ,

কাঁচামরিচ কুচি ৩/৪টি,

সল্টেড ক্যাশনাট ১/৪কাপ,

সুইট চিলি সস ২ টেবিল চামচ,

লেবুর রস ২ চা চামচ,

চিনি ২/১ চিমটি, লবণ স্বাদ মতো।

সসের সব উপকরণ মিশিয়ে নিন  (টমেটো সস, চিনি ও লেবুর রসের পরিমাণ স্বাদমতো কম বেশি করতে পারেন)।

প্রণালি: চুলায় ১ কাপ পানি গরম করুন। সামান্য লবণ ও ১/২ চা চামচ আদাবাটা দিয়ে মুরগির বুকের মাংস সিদ্ধ করুন। সিদ্ধ হলে নামিয়ে ঠাণ্ডা করে জুলিয়ান(চিকোন লম্বা) কাটে কেটে নিন।

আবার ১ কাপ পানি গরম করে তাতে খোসা ছাড়িয়ে চিংড়ি মাছ ও ফিস সস দিয়ে ফুটে উঠলেই নামিয়ে ছেঁকে নিন।

এবার বাকি আদা বাটা ও সয়া সস দিয়ে মাংস ও চিংড়ি মাছ আলাদা আলাদা পাত্রে নিয়ে মেখে রাখুন। চুলায় তেল দিয়ে প্রথমে মাংস ভেজে নিন। পরে মাংস তুলে তাতে মাছ ভেজে নিন। একটু ঠাণ্ডা করে তৈরি করা সস মিশিয়ে পরিবেশন করুন।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
Read previous post:
ঈদের দিন বনশ্রীতে সেলফি তুলতে গিয়ে তরুণ নিহত

  রাজধানীর বনশ্রী এলাকায় সেলফি তুলতে গিয়ে ছাদ থেকে পড়ে এক তরুণ নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম মাহমুদুল হাসান হৃদয়। মঙ্গলবার...

Close

উপরে