Logo
মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৮ | ৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কুড়িগ্রাম থেতরাই ইউপি চেয়ারম্যান ন্যায়, নিষ্ঠা ও সততার প্রতিক

প্রকাশের সময়: ১০:২৬ অপরাহ্ণ - শনিবার | আগস্ট ১৮, ২০১৮

তৃতীয় মাত্রা
ডাঃ জি.এম ক্যাপ্টেন, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রাম উলিপুর উপজেলার থেতরাই ইউনিয়ন পরিষদের সফল চেয়ারম্যান আলোকিত মুখ মোঃ আইয়ুব আলী সরকার এবং ন্যায়, নিষ্ঠা ও সততার প্রতিক। সরেজমিন অনুসন্ধানে জানা যায় কুড়িগ্রাম উলিপুর উপজেলার থেতরাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আইয়ুব আলী সরকার দায়িত্ব নেয়ার পর হতে ইউনিয়নের উল্লেখযোগ্য উন্নয়নের অগ্রণী ভূমিকা রেখে সাধারণ মানুষজনের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছেন।

নদী ভাঙ্গন কবলিত হতদরিদ্র মানুষের উন্নয়নে তার নিরন্তর প্রয়াস সব মহলেই প্রশংসা কুড়িয়েছে। রাস্তা ঘাটের উন্নয়ন, হাট-বাজার উন্নয়নসহ এলজিএসপির অর্থায়নে উন্নয়নমূখী প্রকল্প সমূহ দাযিত্বশীল ভাবে সততার মাধ্যমে বাস্তবায়ন করে এলাকায় নিজের মুখ উজ্জ্বল করেছে। থেতরাই ইউনিয়নের আলোকিম মুখ হিসেবে এই মানুষটি নিজের সাফল্যের কারণে বিভিন্ন সংগঠন কর্তৃক নানা ভাবে প্রশংসিত হয়েছেন। সে কারণে হিউম্যান রাইটস কালচারাল সোসাইটি কর্তৃক শেরে-ই-বাংলা এ.কে ফজলুল হক সম্মাননা পদক – ২০১৭, সমাজ সেবায় বিশেষ অবদানের জন্য অর্জন করেন।

এছাড়াও কুড়িগ্রাম জেলার মোট ৭৩টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ ইউনিয়ন পরিষদ সম্মাননা স্মারক অর্জন করেন ১১ জুলাই বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস’ ২০১৭ইং পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয় কর্তৃক। ব্যক্তি জীবনে তিনি অত্যান্ত নম্র, ভদ্র, সদা হাস্যজ্জ্বল সাদা মনের মানুষ এবং দান শীল। ইউনিয়নের হতদরিদ্র মানুষ তার কাছে সর্বদা সাহায্য সহযোগিতা পেয়ে থাকেন। পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে সরকার প্রদত্ত ভিজিএফ’র চাল সুষ্ঠভাবে বিতরণ করেছেন পরিষদের সকল মেম্বারের তালিকা অনুযায়ী ন্যায়, নিষ্ঠা ও সততার মধ্য দিয়ে যা অনন্য ইউনিয়ন পরিষদের দৃষ্টান্ত। হয়ে থাকবে মনে করে জনগন।

অথচ উক্ত ইউনিয়নের দড়িকিশোরপুর গ্রামের মৃত আজিজার রহমানের পুত্র শফিকুল ইসলাম বাবুল ১ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করেন চেয়ারম্যান মোঃ আইয়ুব আলী সরকার এর নিকট ঈদ পালন করার জন্য। চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করায় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দৈনিক জাগো বাহে স্থানীয় পত্রিকায় প্রথম পৃষ্ঠায় ২ কলামে উলিপুর চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সরকারী অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ মর্মে সংবাদ প্রকাশ করেন উক্ত পত্রিকার সাংবাদ কর্মীকে মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন তথ্য দিয়ে। এছাড়াও ৫ লক্ষ টাকা হাট-বাজার উন্নয়নে কাজ না করে আত্মসাতের লিখিত অভিযোগ করেন জেলা প্রশাসক ও উলিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর। সরেজমিনে উক্ত হাট-বাজারে গিয়ে দেখা যায় এস্টেটমেন্ট অনুযায়ী কাজ শতভাগ করা হয়েছে। এব্যাপারে চেয়ারম্যান মোঃ আইয়ুব আলী সরকার বলেন মিথ্যা দিয়ে অসৎ উদ্দেশ্য সফল করা যায় না। প্রয়োজনে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

Read previous post:
পূর্বধলায় কোরবানির পশুর হাটে ভেটেরিনারী মেডিকেল টিম

তৃতীয় মাত্রা মোঃ এমদাদুল ইসলাম, পূর্বধলা (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি: নেত্রকোনার পূর্বধলায় কোরবানির বিভিন্ন হাটবাজারে উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের উদ্যোগে ভেটেরিনারি মেডিকেল টিম বাজার...

Close

উপরে