Logo
বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০১৯ | ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সিরাজগঞ্জ-৬: আ’লীগের মনোনয়ন প্রাপ্তিতে এগিয়ে এ্যাড. শেখ আব্দুল হামিদ লাভলু

প্রকাশের সময়: ৭:০৬ অপরাহ্ণ - রবিবার | আগস্ট ১২, ২০১৮

তৃতীয় মাত্রা

মোঃ জহির রায়হান, সিরাজগঞ্জ: আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিরাজগঞ্জ-৬ শাহজাদপুর আসনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ হতে মনোনয়ন প্রাপ্তির সম্ভাব্য ব্যক্তিত্ব হলেন শাহজাদপুর উপজেলার প্রথম উপজেলা চেয়ারম্যান সাবেক পুলিশ সুপার প্রয়াত জনাব ফজলুল হক এর তৃতীয় সন্তান ক্লীন ইমেজের অধিকারী, জননেতা ও উন্নয়ন প্রেমী এ্যাডঃ শেখ আব্দুল হামিদ লাভলু। এ্যাড. শেখ আব্দুল হামিদ লাভলুর দাদা সুদূর ইয়ামেন শহর থেকে ধর্ম প্রচারের জন্য বাংলাদেশের শাহজাদপুরের গালা ইউনিয়নের দুগলী গ্রামে বসতি স্থাপন করেন মাওলানা জহির উদ্দিন।

১১ সন্তানকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে দেশের সেবায় কাজ করানোর জন্য সাধারন জনগন প্রথম উপজেলা চেয়ারম্যান সাবেক পুলিশ সুপার প্রয়াত ফজলুল হক সাহেবকে একজন গর্বিত পিতা হিসেবে মনে করেন।

এ্যাড. শেখ আব্দুল হামিদ লাভলুর সবার বড় ভাই শেখ শামসুল হক অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ, দ্বিতীয় ভাই আইন ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু সালেহ শেখ মোঃ জহিরুল হক দুলাল, চতুর্থ ভাই শেখ ওয়ালিউল হক একজন ব্যাংক কর্মকর্তা, পঞ্চম ভাই শেখ বজলুল হক হলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একজন লেঃ কর্নেল, ষষ্ঠ ভাই হলেন শেখ দিয়ানাতুল হক ফায়ার সার্ভিসের ব্রিগেড অফিসার, সপ্তম ভাই শেখ দিদারুল হক বাংলাদেশ পুলিশের সাব- ইন্সপেক্টর পদে কর্মরত আছেন। ভাতিজা শেখ সাবুকুল হক পুলিশ সুপার পদে চট্টগ্রামে কর্মরত আছেন।

এ্যাড. শেখ আব্দুল হামিদ লাভলুর বড় ছেলে শেখ দিদারুল হক জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার সহকারী পরিচালক পদে কর্মরত আছেন, ছোট ছেলে জীম আদমজী কলেজে অধ্যয়নরত আছেন আর একমাত্র মেয়ে পিয়াল খাজা ইউনুস আলী মেডিক্যাল কলেজে ৪র্থ বর্ষের ছাত্রী।

এ্যাড. শেখ আব্দুল হামিদ লাভলু বর্তমানে সিরাজগঞ্জ জেলা নারী ও শিশু আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর, শাহজাদপুর থানা আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক, সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের অন্যতম সদস্য, সহ-সভাপতি বাংলাদেশ মিল্ক ইউনিয়ন, সভাপতি দুগলী স্কুল এন্ড কলেজ , সভাপতি শাহজাদপুর পাইলট স্কুল দায়িত্ব পালন করছেন।

এ্যাড. শেখ আব্দুল হামিদ লাভলু বলেন-“ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের জোয়ারের ছোয়া শাহজাদপুরেও লেগেছে। বিগত ৪ দলীয় জোট সরকারের আমলে শাহজাদপুর ছিল একটি অবহেলিত ও পিছিয়ে থাকা জনপদ।

জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রত্যক্ষ নির্দেশে ও আইন ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু সালেহ শেখ মোঃ জহিরুল হক দুলাল এর সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে

১। শাহজাদপুর সরকারী কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে রুপান্তর করা হয়েছে এবং ১০ টি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু করা হয়েছে
২। শাহজাদপুরে চৌকি আদালত , যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ কোর্ট স্থাপন করা হয়েছে
৩। থানা সদরে ২০ সয্যা বিশিষ্ট্য হাসপাতাল স্থাপন করা হয়েছে
৪। শাহজাদপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়কে জাতীয় করন করা হয়েছে
৫। শাহজাদপুর সদর এর সাথে প্রতিটি ইউনিয়নের সড়ক যোগাযোগের ব্যবস্থা করা হয়েছে
৬। গালা ইউনিয়নের দুগলী উচ্চ বিদ্যালয়কে কলেজে উন্নীত করন করা হয়েছে।
৭। প্রতিটি উচ্চ বিদ্যালয় ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বহুতল ভবন নির্মান করা হয়েছে
আমার একটাই শ্লোগান “ মাদকমুক্ত শাহজাদপুর ও প্রতিটি ঘরে শিক্ষার আলো”।
এ্যাড. শেখ আব্দুল হামিদ লাভলু আরো বলেন – “আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দিলে বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে শাহজাদপুর আসনটি তাকে উপহার দিব”।

 

Read previous post:
এবার মেঘনা নদীতে গোসল করতে নেমে দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যু

  নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে মেঘনা নদীতে গোসল করতে নেমে স্রোতের পানিতে তলিয়ে ইয়াসিন (৭) ও বিন ইয়ামিন (৭) নামে দুই স্কুলছাত্রের...

Close

উপরে