Logo
রবিবার, ১৭ অক্টোবর, ২০২১ | ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

এই প্রথম বিরোধী দলের সাথে সমঝোতা স্বাক্ষর মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশের সময়: ৯:০০ পূর্বাহ্ণ - মঙ্গলবার | সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১

তৃতীয় মাত্রা

এম এ আবির, মালয়েশিয়া প্রতিনিধি : মালয়েশিয়া সচ্ছ ও সুশৃঙ্খল রাজনীতির গুন আছে এশিয়ার মধ্যে। যা অনন্য দেশে খুব কম। ২০১৮ সাল থেকে নানা নাটকীয় ঘটনার মধ্যে দিয়ে মালয়েশিয়ার রাজনৈতিক মাঠ উপ্তত ছিল এই মহামারি কোভিড-১৯ এর মাঝেও। হঠাৎ একের পর এক পটপরিবর্তনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিল মালয়েশিয়ার রাজনৈতিক মাঠ।

সেই আগের সচ্ছ ও সুশৃঙ্খল রাজনীতি ফিরে আসছে আস্তে আস্তে বলে ধারণা করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। দেশের বিরোধী দলের সঙ্গে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব।গতকাল ১৩ ই সেপ্টেম্বর সোমবার সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের সময় উপস্থিত ছিলেন দেশটির নব্য প্রধানমন্ত্রী দাতুক সেরি ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব, দেওয়ান নেগারা সভাপতি রইস ইয়াতিম, স্পিকার আজহার আজিজান হারুন এবং পিএইচ স্বাক্ষরকারীরা-পিকেআর সভাপতি আনোয়ার ইব্রাহিম, ড্যাপ মহাসচিব লিম গুয়ান ইঞ্জ এবং আমানাহ সভাপতি মোহাম্মদ সাবু।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- আনুয়ার মুসা (কেতেরেহ), অ্যান্থনি লোক (সেরেম্বান), সাইফুদ্দিন নাসুশন ইসমাইল (কুলিম-বন্দর বাহরু) এবং সালাহউদ্দিন আইয়ূব (পুলাই) সিনেটর ডোনাল্ড পিটার মজুনটিন।

চুক্তি শেষে তান শ্রী আনোয়ার মুসা বলেন, বিরোধী দলের দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা নিশ্চিত করতে সম্প্রতি স্বাক্ষরিত ঐতিহাসিক সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) ফেডারেল সরকারকে ঐক্য সরকার বা নতুন রাজনৈতিক প্রান্তিকতা হিসেবে গণ্য করা হবে না। বর্তমানে সবচেয়ে বড় জোট – পাকাতান হরাপান (পিএইচ) এর জন্য এমওইউ। “আমরা কৃতজ্ঞ যে সরকার এবং পিএইচ -এর প্রতিনিধিদের মধ্যে ধারাবাহিক আলোচনার পর এখন এমওইউ সমঝোতা স্বাক্ষরের মাধ্যমে এটি চূড়ান্ত করা হয়েছে। “রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা মধ্যে এই সমঝোতা স্মারক” স্বাক্ষর রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার মধ্যে নতুন মেরুকরণ তৈরি করেছে। যা রাজনৈতিক বিভাজন নয় উভয় পক্ষকে কাজ করতে হবে বৃহত্তর কল্যাণের জন্য অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের প্রয়াসে।

সারাবিশ্বে যেখানে করোনার নিয়ন্ত্রণে সেখানে এখনো আমরা করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে লড়াই করছি। এ অবস্থায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী বিরোধী দলের সঙ্গে চুক্তিতে তার সমর্থন বাড়বে বলে অনেকে মনে করছেন।

এর আগে ১২ সেপ্টেম্বর রোববার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিয়ে সরকার ও বিরোধী দলের প্রতিনিধিরা একটি বিবৃতি দেন।দেশটিতে চলমান দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক অচলাবস্থা নিরসনের মধ্য দিয়ে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা সৃষ্টি, করোনা মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই এবং দ্বি-পক্ষীয় সহযোগিতার মাধ্যমে দেশের অর্থনীতিকে পুনরুজ্জীবিত করতে সবাই একমত হয়েছেন- আগামী বছরের ৩১ জুলাই পর্যন্ত সংসদ ভেঙে দেয়া হবে না।

ইউনাইটেড মালয়স ন্যাশনাল অর্গানাইজেশনের (ইউএমএনও) শীর্ষ নেতা ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব। গত আগস্টে মুহিউদ্দিন ইয়াসিনের পদত্যাগের পর প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা গ্রহণ করেন তিনি।

Read previous post:
চরভদ্রাসনে পানির স্রোতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

তৃতীয় মাত্রা নাজমুল হাসান নিরব, ফরিদপুর প্রতিনিধি : ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলা সদর ইউনিয়নের দবিরদ্দিন প্রামানিকের ডাঙ্গী গ্রামে গোসল করতে যেয়ে...

Close

উপরে