Logo
শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ | ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

‘বাংলাদেশে পালিয়েছে ২২ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম’

প্রকাশের সময়: ২:৪২ অপরাহ্ণ - সোমবার | ডিসেম্বর ১২, ২০১৬

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনাবাহিনীর বর্বর নির্যাতনে সেখান থেকে হাজার হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে প্রতিবেশি বাংলাদেশে আশ্রয় নিচ্ছে।

রোহিঙ্গা মুসলিমদের মানবিক সহায়তা প্রদানের জন্য বার বার আহ্বান জানাচ্ছে জাতিসংঘ। জাতিসংঘের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, দু’মাসের বেশি সময় ধরে রাখাইন রাজ্যের প্রায় দেড় লাখ রোহিঙ্গা মুসলিম মানবেতর জীবনযাপন করছে। সেখানে কোনো মানবিক সহায়তাও পৌঁছাচ্ছে না। খবর ফ্রন্টিয়ার মিয়ানমারের।

এদিকে, মিয়ানমার সরকার মাংদাও অঞ্চলে কোনো সংবাদমাধ্যম, সাংবাদিক বা ত্রাণকর্মীকে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না। তাই ওই অঞ্চলের প্রকৃত অবস্থা জানাও সম্ভব হচ্ছে না।

গত নভেম্বরে মিয়ানমারের বর্ডার গার্ড পুলিশের তিনটি পোস্টে হামলার ঘটনায় নয় পুলিশ সদস্য নিহত হওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাখাইন রাজ্যে অভিযান শুরু করে সেনাবাহিনী।

অভিযানের নাম করে সেনাবাহিনী ওই অঞ্চলের রোহিঙ্গা মুসলিমদের বাড়ি-ঘরে আগুন দিচ্ছে, নারীদের ধর্ষণ করছে, বহু মানুষকে হত্যা করেছে। অথচ মিয়ানমার সরকার এবং সেনাবাহিনী বরাবরই এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

ডিসেম্বরের ৯ তারিখে মিয়ানমারে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সমন্বয়কের মুখপাত্র পিয়েরে পেরোন এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, রাখাইন রাজ্য থেকে ২২ হাজার রোহিঙ্গা মুসলিম পালিয়ে প্রতিবেশি বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।

দু’মাসের বেশি সময় ধরে বহু মানুষ মৌলিক স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সেখানকার ৭ হাজার ৬শ’ গর্ভবতী নারী কোনো ধরনের চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে না।

এক বিবৃতিতে, যুক্তরাষ্ট্র, নেদারল্যান্ডস, ফ্রান্স, বেলজিয়ামসহ ১৪ দেশের কূটনীতিক রাখাইন রাজ্যের মানবিক পরিস্থিতি নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

Read previous post:
তিন বাহিনীর প্রধানের মেয়াদ সর্বোচ্চ ৪ বছর

তৃতীয় মাত্রা: তিন বাহিনীর প্রধানের মেয়াদ সর্বোচ্চ চার বছর রেখে ‘প্রতিরক্ষা-বাহিনী প্রধান (নিয়োগ, অবসান এবং বেতন ও ভাতাদি) আইন ২০১৬’...

Close

উপরে