Logo
শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২০ | ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

৫ বছরের নিষেধাজ্ঞা দুই বছরেই শেষ!

প্রকাশের সময়: ৯:৫০ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | অক্টোবর ২০, ২০২০

তৃতীয় মাত্রা

২০১৮ সালে প্রিমিয়ার হকি লিগে মাঠে গোলযোগের কারণে মোহামেডান ও মেরিনার্সের দুজন করে কর্মকর্তাকে নিষেধাজ্ঞার শাস্তি দেওয়া হয়েছিল। দুই বছর না হতেই তাদের শাস্তি তুলে নেওয়া হয়েছে। আজ (মঙ্গলবার) হকি ফেডারেশনের নির্বাহী কমিটির সভাতে দুই ক্লাবের কর্মকর্তাদের শাস্তি মওকুফ করা হয়েছে।

মাঠে গোলযোগের কারণে মোহামেডান কর্মকর্তা আরিফুল হক প্রিন্স ও ম্যানেজার আসাদুজ্জামান চন্দন পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন। ‍অন্যদিকে মেরিনার্সের সাধারণ সম্পাদক হাসানউল্লাহ খান রানার শাস্তিও ছিল পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা। পাশাপাশি তিনজনকেই জরিমানা গুনতে হয়েছিল ১ লাখ টাকা। জরিমানার অর্থ পরিশোধ না করলে শাস্তি বেড়ে যাওয়ার কথা ছিল আরও দুই বছরের। মেরিনার্সের আরেক কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম তিন বছরের নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি ৫০ হাজার টাকা জরিমানার শাস্তি পেয়েছিলেন। হকির ‘বৃহত্তর স্বার্থের’ কথা চিন্তা করে দুই বছর না হতেই এখন তাদের ওপর থেকে শাস্তি প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে।

এই চারজনকে শর্তসাপেক্ষে শাস্তি থেকে মুক্তি দেওয়ার কথা জানিয়েছেন ফেডারেশনের সভাপতি ও বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত। সভা শেষে তিনি বলেছেন, ‘আমাদের প্রিমিয়ার লিগ মাঠে নামাতে হবে। অনেককে শাস্তি দেওয়া হয়েছিল, সবাই মিলে আলোচনা করে শর্তসাপেক্ষে মওকুফ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আশা করি, ১ ডিসেম্বর প্রিমিয়ার লিগ শুরু করতে পারবো। তার আগে ১০-১৫ দিন দলবদলের জন্য সময় দেওয়া হবে।’

সভাপতি অবশ্য এই সিদ্ধান্তের জন্য হকির বৃহত্তর স্বার্থকেই সামনে টেনে এনেছেন, ‘হকি মানেই শৃঙ্খলা। শৃঙ্খলা মানেই হকি। ইনশাল্লাহ ভবিষ্যতে আমি নিশ্চিত এই ধরনের ঘটনা আর হবে না। সাসপেনশন মানেই সবসময় যাবজ্জীবন না। কিছু ব্যাপার সবসময় থাকে। হকিতে আমরা যদি এই বিষয়ে দৃঢ় না থাকি তাহলে হকি টলটলায়মান ভাবে চলতেই থাকবে। ইনশাল্লাহ আমরা দৃঢ় থাকবো। কিন্তু যে বিষয়টা আসছে হকির স্বার্থে, মানে হকিতে যাতে সবাইকে রাখতে পারি, সেই কারণেই এটা করা হয়েছে।’

সভায় প্রিমিয়ার লিগ থেকে অবনমিত ঊষা ক্রীড়াচক্রকে ফেরানো নিয়েও কথা হয়েছে। তবে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। তবে ফেডারেশনের সভাপতি বলেছেন, ‘ঊষা একটি ঐতিহ্যবাহী ক্লাব। তারা গত লিগে খেলেনি বলে রেলিগেটেড হয়ে গিয়েছিল। তারা পুনরায় প্রিমিয়ারে খেলার আবেদন করেছে। আমরা একটা জিনিস চাই, সবাই যেন খেলতে আসে। একই সময় গঠনতন্ত্র সঙ্গে কোনও সমঝোতা করতে চাই না। যদি করতে হয় তাহলে বাইলজে পরিবর্তন সাধন করেই করতে হবে। আবার যদি এখতিয়ারের মধ্যে থাকে তাহলে সেটা করতে পারি এই স্বার্থে যে সবাই খেলবে। লিগ অনেকদিন হয় না। আগামী ৫-৭ দিনের মধ্যে আইন বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলে আমরা সিদ্ধান্ত নেবো।’

আগামী জানুয়ারিতে বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-২১ জুনিয়র এশিয়া কাপ আয়োজন করতে যাচ্ছে হকি ফেডারেশন। বর্তমান কোভিড পরিস্থিতিতে হকি ফেডারেশনের সভাপতি এশিয়ান হকি ফেডারেশনকে নিশ্চয়তা দিয়েছেন সর্বোচ্চ স্বাস্থ্য নিরাপত্তার, ‘আমরা তো স্বাস্থ্য বিষয়ে এক্সপার্ট না। ওমান আসবে না বলেছে। ওদের দূতাবাসকে জানিয়েছি, এখানে তাদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেওয়া হবে। তাছাড়া দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আমি ব্যক্তিগতভাবে অনেক কাজ করেছি। সেই তথ্যগুলো এশিয়ান হকি ফেডারেশনের প্রধান নির্বাহী দাতো তৈয়ব ইকরামকে দিয়েছি, যাতে তিনি দেখেন বাংলাদেশ কতটা নিরাপদ। আমরা আশা করছি, নির্ধারিত সময়ে সর্বোচ্চ স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করে আসরটি আয়োজন করবো। এ ব্যপারে আমরা সরকারের সংশ্লিষ্ট মহলের কাছ থেকে অনুমতি চেয়েছি। তাদের কোনও সমস্যা না থাকলে আমরা নির্ধারিত সময়েই খেলা আয়োজন করবো।’

Read previous post:
এবারের হজে যেসব কাজ বাধ্যতামূলক ও নিষিদ্ধ

তৃতীয় মাত্রা তৃতীয় মাত্রা ধর্ম ডেস্ক: মহামারি করোনার কারণে বাধ্যতামূলক নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং কিছু কাজে কঠোর নিষেধাজ্ঞা জারির মাধ্যমে নিরাপদ...

Close

উপরে