Logo
শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২০ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সিলেটে বহু প্রত্যাশিত ই-পাসপোর্ট সেবা পুরোদমে চালু

প্রকাশের সময়: ৯:০৩ অপরাহ্ণ - বুধবার | সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২০

তৃতীয় মাত্রা

প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেটে বহু প্রত্যাশিত ই-পাসপোর্ট সেবা পুরোদমে চালু হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সিলেটে ই-পাসপোর্টের আবেদন গ্রহণের পাশাপাশি পূর্বের মতো এমআরপি (মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট) পদ্ধতিতেও পাসপোর্টের জন্য আবেদন করা হচ্ছে।

সূত্র জানায়, নেটওয়ার্কের কারণে অনেক সময় সেবা দিতে সমস্যা হয়। গত ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে এ সেবা শুরু হলে ঐ দিনই অর্ধশতাধিক আবেদন গ্রহণ করা হয়।

সিলেট পাসপোর্ট অফিসের অতিরিক্ত পরিচালক নূরুল হুদা জানান, বুধবার পর্যন্ত ১৫০ টি আবেদন জমা নেওয়া হয়েছে। তিনি জানান, অনেকেই এখানে এসে স্বাস্থ্যবিধি মানতে চান না। তবে তারা চেষ্টা করছেন স্বাস্থ্য বিধি মানিয়ে সেবা দিতে।

সূত্র জানায়, ই-পাসপোর্টের কোটা মূলত ঢাকা অফিস থেকে বরাদ্দ করা হয়। সিলেট পাসপোর্ট অফিসের ৯ কর্মকর্তা এ বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণ নিচ্ছেন। ই-পাসপোর্ট পদ্ধতিতে পাসপোর্ট গ্রহীতারা সহজে আবেদন করতে পারবেন। ভোগান্তি কম এবং দ্রুত সেবা পাবেন। এই পদ্ধতিতে সাধারণ পাসপোর্টের মতো অনলাইনে আবেদন করতে হবে। তবে ফরম পূরণের সময় ছবি সত্যায়িত করা লাগবে না। বয়স ১৮ বছরের ওপরে হলে ভোটার আইডি কার্ড বাধ্যতামূলক। ই-পাসপোর্টে মাইক্রোপ্রসেসর চিপ ও স্মার্ট কার্ড প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। ই-পাসপোর্টের চিপে ৩৮ ধরনের নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য থাকবে। ই-পাসপোর্টের বায়োমেট্রিক তথ্যের মধ্যে ছবি, ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের আইরিশ এর তথ্য থাকবে।

গত ১৫ জুন ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাকিল আহমদ সিলেটের আলমপুরস্থ বিভাগীয় অফিসে ফিতা কেটে সিলেটে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। করোনার কারণে এর কার্যক্রম এতো বন্ধ ছিল। এর আগে চলতি বছরের ২২ জানুয়ারি দেশে ইলেক্ট্রনিক পাসপোর্ট বা ই-পাসপোর্টের উদ্বোধন উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর পর আরও কয়েকটি জেলায় ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম চালু হয়।

উল্লেখ্য, প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেটে স্বাভাবিক অবস্থায় পাসপোর্টের জন্য প্রতি মাসে ৩-৪ শত আবেদন জমা পড়ে। এতে সরকারের রাজস্ব আয় হয় প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকার বেশী। সিলেট অঞ্চলে ৬০ এর দশক থেকে পাসপোর্টের প্রচুর চাহিদা। আর তখন সিলেটে হাতে লিখা পাসপোর্ট ইস্যু হতো। এর পর এমআরপি। বর্তমানে ই-পাসপোর্টের প্রচলন হওয়ায় অনেকেই খুশি।

সূত্র মতে, কেউ ইচ্ছে করলে তার এমআরপি পাসপোর্ট পরিবর্তন করে নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে ই-পাসপোর্ট করে নিতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে পূর্বের এমআরপি পাসপোর্টটি বাতিল হয়ে যাবে। তবে যারা এখুনি ই-পাসপোর্ট করতে চান না তাদের এমআরপি পাসপোর্টই বহাল থাকবে। কিন্তু কারো এমআরপি পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে তাকে তা বদল করে ই-পাসপোর্ট নিতে হবে।

 

Read previous post:
কানাডায় প্রধান জনস্বাস্থ্য কর্মকর্তার সর্তকতা

তৃতীয় মাত্রা সম্প্রতি কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। সর্বশেষ ফেডারেল মডেলিংয়ের তথ্য অনুসারে কানাডা আগামী শুক্রবারের মধ্যে কোভিড-১৯ -এর...

Close

উপরে