Logo
শুক্রবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ | ৫ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কলাপাড়া ও কুয়াকাটায় শত বছরের ঐতিহ্যবাহী রাস উদযাপন থেকে শুরু

প্রকাশের সময়: ৯:৫১ অপরাহ্ণ - শনিবার | নভেম্বর ১২, ২০১৬

 

22

তৃতীয় মাত্রা:

ফরাজী মো.ইমরান, কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ॥ কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে পূর্নিমা তিথীতে রাস উৎসব পালনে দেশী-বিদেশী পুন্যার্থী, সাধূ-সণ্যাসী, দর্শনার্থীদের ভীড়ে মুখরিত । প্রতি বছরের ন্যায় এবারও রাস উৎসবে হিন্দু ধর্মাবলম্বী রাসভক্ত নর-নারী ছাড়াও অন্য ধর্মের লক্ষাধিক মানুষের সমাগম ঘটেছে। আজ রবিবার অধিবাসের মধ্য দিয়ে শুরু হচ্ছে ৫দিন ব্যাপী  রাসমেলা। রাস উৎসবকে ঘিরে কুয়াকাটাসহ কলাপাড়ার গোটা উপজেলায় প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। সেবাশ্রম প্রাঙ্গনে স্থাপন করা হয়েছে সিসি ক্যামেরা। নির্বিঘেœ এ রাস মেলা ঘিরে নেয়া হয়েছে বিভিন্ন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
হিন্দু ধর্মীয় মতে দাপরযুগে কংশ রাজার অত্যাচারে যখন মানবকুল অতিষ্ঠ, তখন অত্যাচারী রাজার হাত থেকে মানব জাতিকে রক্ষায় ধরাধামে আবির্ভূত হন ভগবান রূপে শ্রীকৃষ্ণ। অলৌকিক ক্ষমতাবলে কংস রাজাকে বধ করে মানবকুলকে রক্ষা করেন। পরবর্তীতে মানুষের মধ্যে হিংসা, হানাহানি, বিদ্বেষ মোচন করে ভ্রাতৃত্ব বন্ধন সুদৃঢ় করতে শ্রীকৃষ্ণ রাধাকে নিয়ে বৃন্দাবনের গোকুলে তমাল ও কদমকুঞ্জে পূর্ণিমার এই তিথিতে নিষ্কাম প্রেমে মিলিত হয়ে এক উপাখ্যানের রচনা করেন। যা তখন থেকে রাস উৎসবে পরিণত হয়।
কলাপাড়া মদন মোহন সেবাশ্রমের সভাপতি ও রাস উদযাপন কমিটির সভাপতি কলাপাড়া পৌর মেয়র বিপুল হাওলাদার জানান, ১৯২৭ সালে সেবাশ্রম প্রতিষ্ঠাকালীণ থেকেই রাস উৎসব উদযাপিত হয়ে আসছে। বৃন্দাবনের মদন মোহন মন্দিরের ঠাকুরের অনুমতি নিয়েই বাংলাদেশে সর্বপ্রথম কলাপাড়া পৌর শহরের মদন মোহন সেবাশ্রমে রাসপুর্ণিমার এ পূজা ও রাসলীলা উৎসব উদযাপিত হয়ে আসছে। ওই সময় থেকেই কুয়াকাটায় শুরু হয় সাগরে পূন্য¯œান।
কুয়াকাটা অনন্যা ভিলা রাধা-কৃষ্ণ মন্দির পুরোহিত অনন্ত মুখার্জী জানান, অনন্যা ভিলা রাধা কৃষ্ণ মন্দিরে স্থাপিত মন্দিরে রাধা-কৃষ্ণের বিশাল আকৃতির যুগল প্রতিমা দর্শনেও ভিড় জমে ভক্তদের। হাজারো ভক্তের জন্য আয়োজন করা হয় খাবারের।
যাতাতায় ব্যবস্থা, নিরাপত্তা ব্যবস্থা, প্রস্থ নৈতকের কারনে প্রায় দু’শ বছরের ঐতিহ্যবাহী রাসমেলা উৎসবে দিনদিন বাড়ছে সমাগম। এবারও আগমন ঘটেছে রাসভক্ত হিন্দু ধর্মাবলম্বীসহ বিভিন্ন ধর্মের প্রায় লক্ষাধিক মানুষের। প্রত্যেক বছর কার্তিকের ভরা পূর্ণিমার তিথিতে এ রাস উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। উৎসবের রাতে কুয়াকাটায় রাধাকৃষ্ণ মন্দির প্রাঙ্গনে ধর্মীয় উৎসব চলে। স্থাপন করা হয় রাধা-কৃষ্ণের যুগল প্রতিমা। পর্যাপ্ত হোটেল-মোটেল না থাকায পূন্যার্থীদের আবাসন সুবিধায় স্থানীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো খুলে দেয়া হয়েছে।
রাসমেলায় আগতদের থাকা খাওয়া নির্বিঘœ করতে আবাসিক হোটেল ভাড়া ও রেস্তরাঁয় খাবারের তালিকামূল্য টাঙ্গানো, সুপেয় পানি ও পর্যাপ্ত স্যনিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করণ, যত্রতত্র গাড়ী পার্কিং নিষিদ্ধ করে ইতোমধ্যে পৌরসভা থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়া সৈকতের জিরো পয়েন্ট থেকে চারদিকে দুই কিমির মধ্যে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর টহল রাখার পাশাপাশি পুরো এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় রাখার কথা জানিয়েছে কলাপাড়া উপজেলা প্রশাসন।
কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবিএম সাদিকুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশাপাশি প্রশাসনের কন্ট্রোলরুম থাকবে। এছাড়া পুরো রাসমেলা এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় রেখে নিরাপত্তা বিধানে পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের পাশাপাশি র‌্যাব ও একাধিক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার দায়িত্বে থাকবেন। থাকবে একাধিক মেডিকেল টিম।

Read previous post:
জিএসপি নিয়ে ট্রাম্প সরকারের সঙ্গে আলোচনা করবেন বার্নিকাট

  তৃতীয় মাত্রা: গাজীপুর প্রতিনিধি: বাংলাদেশের পোশাক খাতে জিএসপি সুবিধা ফিরিয়ে দিতে নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারের সঙ্গে আলোচনা...

Close

উপরে