Logo
সোমবার, ১৩ জুলাই, ২০২০ | ২৯শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দুর্ভোগের আরেক নাম আদমদীঘি-আবাদপুকুর সড়ক

প্রকাশের সময়: ১:২৫ অপরাহ্ণ - বুধবার | জুন ৩, ২০২০

তৃতীয় মাত্রা

রাকিবুল হাসান আদমদীঘি : নওগাঁর জনদুর্ভোগের অপর আরেক নাম আবাদপুকুর-আদমদীঘি সড়ক। রাণীনগর ও আদমদীঘি এই দুই উপজেলার মধ্যে অবস্থিত হওয়ায় এই জনগুরুত্বপূর্ণ সড়কের অবস্থা খুবই বেহাল। এলজিইডির আওতায় মোট ১৩কিমি রাস্তার মধ্যে বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার অধিকাংশই খুবই বেহাল। আদমদীঘি সদর থেকে রাণীনগর অংশের মধ্যে পারইল ইউনিয়ন পরিষদ পর্যন্ত রাস্তার অবস্থা খুবই খারাপ। যেন সড়ক নয় বড় বড় পুকুর। রাণীনগর উপজেলার বাণিজ্যিক রাজধানী আবাদপুকুর থেকে এই সড়ক দিয়ে নওগাঁ সদর ও আদমদীঘি উপজেলা খুব কাছে হওয়ায় এই অঞ্চলের প্রায় শতাধিক গ্রামের মানুষরা এই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করাসহ ধানসহ পণ্য আনা-নেওয়ার কাজ করে থাকেন। যার কারণে এই অঞ্চলের অধিকাংশ মানুষকেই প্রতিনিয়ত চরম দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। অপরদিকে আদমদীঘি উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বছরখানেক আগে তাদের অংশের খারাপ রাস্তাটি নামে মাত্র সংস্কার করা হয়। সংস্কারের বছরখানেক পরই আবার আদমদীঘি রেলস্টেশন, চৌমুহনী বাজারসহ অধিকাংশ স্থানেই পাকা উঠে গিয়ে সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় খানা-খন্দকে।স্থানীয়দের অভিযোগ, সড়ক সংস্কার কাজে নিম্ন মানের উপকরন ব্যবহার করে তাড়াহুড়ো করে পাঁকা করার কারণে আবার সড়কে বড় বড় খন্দকের সৃষ্টি হয়েছে।
পারইল গ্রামের বাসিন্দা জিল্লুর রহমান, খাস-পারইল গ্রামের আনছার আলীসহ অনেকেই বলেন দীর্ঘ দুর্ভোগের পর প্রায় এক বছর আগে এই সড়কের সংস্কার কাজ করা হয়। কিন্তু সংস্কার কাজে চরম অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে আবার সড়কের অধিকাংশ স্থানেই নতুন করে সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় খানা-খন্দকের। প্রতিদিনই এইসব গর্তে যানবাহন পড়ে ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। আর পথচারীদের ভোগ করতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ ও কষ্ট।
রাণীনগর উপজেলা প্রকৌশলী শাইদুর রহমান মিঞা বলেন, এই সড়কের প্রায় সাড়ে ৮কিমি রাস্তার খানা-খন্দক ও দুই পাশে প্রসস্ত করার জন্য আগামী বছরের বাজেটে চাহিদা প্রদান করা হয়েছে। আশা রাখি বরাদ্দ পেলেই এই জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটির সংস্কার ও প্রসস্তকরনের কাজ শুরু করা হবে।

আদমদীঘি উপজেলা প্রকৌশলী সাজেদুর রহমান বলেন, পূর্বে এই রাস্তাটি শুধু কার্পেটিং করা হয়েছিলো যার কারণে ভারী যানবাহন চলাচলের কারণে আবার তা বেহাল হয়ে পড়েছে। তবে আগামী অর্থবছরে এই রাস্তাটির নকশা পরির্বতন করে দীর্ঘস্থায়ী করার লক্ষ্যে নতুন করে চাহিদাপত্র দেওয়া হয়েছে। অর্থবরাদ্দ পেলেই নতুন করে এই রাস্তাটির সংস্কার কাজ শুরু করা হবে।

নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সংসদ সদস্য ইসরাফিল আলম বলেন, এই রাস্তাটি খুবই গুরুত্বপূর্ন। অতি দ্রুত রাস্তাটি দীর্ঘস্থায়ী ভাবে সংস্কার করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা প্রদান করেছি। আশা রাখি আগামী অর্থবছরে এই সমস্যাটি সমাধান হয়ে যাবে।

Read previous post:
আদমদীঘিতে আরও এক ব্যক্তির করোনা শনাক্ত

তৃতীয় মাত্রা রাকিবুল হাসান আদমদীঘি : বগুড়ার আদমদীঘিতে আরও এক ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের তথ্য পাওয়া গেছে। গতকাল মঙ্গলবার...

Close

উপরে