Logo
সোমবার, ২৫ মে, ২০২০ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

গাইবান্ধায় ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে আসছে মানুষ

প্রকাশের সময়: ১২:০৩ অপরাহ্ণ - শনিবার | মে ২৩, ২০২০

তৃতীয় মাত্রা

এস,এম শাহাদৎ হোসাইন ,গাইবান্ধা : পবিত্র ঈদ উল ফিতর সামনে রেখে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে মানুষ গাইবান্ধায় প্রবেশ করায় করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির শস্কায় আতস্কিত হয়ে পড়েছে সাধারণ মানুষ। প্রবেশ রোধে গাইবান্ধা জেলার প্রবেশপথ, রাস্তার মোড় ও নৌঘাটসহ এমন প্রায় ৫০টি স্থানে বসানো হয়েছে পুলিশের বিশেষ পাহারা। ঈদ উল ফিতর সামনে রেখে নেওয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এরপরও প্রতিদিন ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস কিংবা পিকআপ-ভ্যান ভাড়া করে মানুষ গাইবান্ধায় আসছে। ঈদে সড়কপথে কড়াকড়ির কারণে বিকল্প হিসেবে নৌপথ ব্যবহা করা হচ্ছে। চার গুণ ভাড়া দিয়ে নৌকায় মানুষ বেশি আসছে। ফলে ব্যাপক হারে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। গত ১০ এপ্রিল গাইবান্ধা জেলা লকডাউন ঘোষণার পর থেকে জেলার প্রবেশপথে পুলিশের কড়া পাহারা বসানো হয়। প্রিয়জনদের সাথে বাড়ীতে ঈদ করতে প্রতিদিন ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে মানুষ গাইবান্ধায় প্রবেশ করার ফলে গাইবান্ধাবাসীর করোনা সংক্রমণ আতঙ্ক বিরাজ করছে। একাধিক সুত্রে জানা যায় গত ২২ মে শুক্রবার পর্যন্ত ৯শত থেকে ৯৫০ জন লোক গাইবান্ধায় এসেছেন। তাঁরা ঢাকা, নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্ন জেলা থেকে গোপনে এসেছেন। গত শুক্রবার গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার বালাসিঘাটে বৃষ্টির মধ্যেও ঝুঁকি নিয়ে তিনটি নৌকায় শতাধিক মানুষ এসেছে। তারা সকলেই ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জ থেকে আসেন। কয়েকজন যাত্রী জানালেন, ব্রহ্মপুত্র নদের পশ্চিমপাড়ে গাইবান্ধার বালাসিঘাট। পূর্ব পাশে জামালপুরের বাহাদুরাবাদঘাট। বালাসি-বাহাদুরাবাদ নৌরুটে প্রতিদিন যাত্রী পারাপার হচ্ছে। আগে বালাসি থেকে বাহাদুরাবাদ যেতে ভাড়া ছিল ১৫০ টাকা। এখন নেওয়া হচ্ছে চার গুণ বেশি ৬ শত টাকা। নৌকায় আসা ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া গ্রামের এক বাসিন্দা বলেন, তিনি ঢাকায় একটি পোষাক কারখানায় চাকরি করেন। সড়কপথে পুলিশের ঝামেলা বেশি। তাই নৌপথে ভাল। নারায়ণগঞ্জ থেকে নৌকায় আসা একই এলাকার আরেক পোষাক শ্রমিক বলেন, কর্মস্থল থেকে সিএনজিচালিত অটোরিক্সা ও ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকে ভেঙে ভেঙে বাহাদুরাবাদঘাটে এসেছেন। এরপর নৌকায় যোগে বালাসিতে আসলেন। ফুলছড়ির উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু রায়হান বলেন, আগে নৌপথে এসেছিলেন, এমন ১৬০ জনকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। এখন কেউ আসছেন না। তারপরও যাতে লোকজন আসতে না পারেন, সে জন্য নজরদারি জোরদার করা হয়েছে। শুধু নৌপথে নয় সড়কপথেও ঢাকা, নারায়ণগঞ্জসহ বিভিন্ন জেলা থেকে শত শত লোক গাইবান্ধায় আসছেন। তাঁরা ঢাকা-রংপুর মহাসড়ক দিয়ে গাইবান্ধায় ঢুকছেন। নামছেন গাইবান্ধা শহরের বাসস্ট্যান্ড, শাপলা মিল, সুখনগর, তিনমাইল এলাকায়। এসব এলাকায় প্রতিদিন রাতে ও ভোরে বিভিন্ন গাড়ি থেকে যাত্রী নামিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল কাদের জিলানী বলেন, বাইরে থেকে লোকজন আসার কোনো সুযোগ নেই। গাইবান্ধার প্রবেশপথে কড়া পাহারা বসানো হয়েছে।

 

Read previous post:
মা হচ্ছেন অভিনেত্রী শুভশ্রী

  তৃতীয় মাত্রা কয়েকদিন আগে পুত্রসন্তানের মা হয়েছেন কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী কোয়েল মল্লিক। এবার শোনা গেল টালিউডের আরেক অভিনেত্রী শুভশ্রীও...

Close

উপরে