Logo
শুক্রবার, ২৯ মে, ২০২০ | ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

লকডাউনে যে স্বপ্নগুলো দেখছেন বেশিরভাগ মানুষ

প্রকাশের সময়: ১:১৩ অপরাহ্ণ - বুধবার | এপ্রিল ২২, ২০২০

তৃতীয় মাত্রা

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস ঠেকাতে লকডাউনের রাস্তায় গিয়েছে বিশ্বের প্রায় বেশিরভাগ দেশ। এই সময়টায় বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না, কারোর সঙ্গে দেখা করা বা আড্ডা দেওয়া যাবে না, কারোর সঙ্গে হাগ বা হ্যান্ডস্যাক করা যাবে না। বরং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে বলা হচ্ছে। এত বিধিনিষেধের মধ্যে জীবন কাটাতে গিয়ে বেশিরভাগ মানুষ অদ্ভ‌ুত অদ্ভ‌ুত স্বপ্ন দেখছেন।

আসলে আমাদের মন দুই রকমের হয়, চেতন ও অবচেতন। আমরা যখন ঘুমিয়ে থাকি তখন এই অবচেতন মন সক্রিয় হয়ে ওঠে। অবচেতন মন অর্থাৎ আমাদের মনের গভীরে যা কাজ করে, তাই আমরা স্বপ্ন হিসেবে দেখে থাকি। এই সময় আমরা অনেকেই আতঙ্কের মধ্যে রয়েছি, ভবিষ্যত্‍ নিয়ে দুশ্চিন্তা রয়েছে আমাদের মধ্যে। নিজের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাওয়ার আগ্রহ কাজ করছে আমাদের মনে। এই সবই আমরা স্বপ্ন হিসেবে দেখে থাকি।

যেমন- এই লকডাউনের সময়ে যে স্বপ্ন আমরা সবচেয়ে বেশি দেখে থাকি তা হলো ছোটবেলার চেনা জায়গায় ফিরে যাওয়া। আসলে আমাদের মধ্যে যে অনিশ্চয়তা কাজ করছে, তার থেকে মুক্তি পেতেই আমরা ছোটবেলার নিরাপত্তা ফিরে পেতে চাইছি।

এছাড়া বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে আড্ডা দেওয়ার স্বপ্নও অনেকে দেখছেন। আসলে সবাই মিলে আড্ডা দেওয়ার অর্থ আমাদের পরিচিত জীবনে ফিরে যাওয়া, যেখানে লকডাউন আর সামাজিক দূরত্বের মতো শব্দগুলো মুছে যাবে। এটাই আমরা এখন সবাই মনে থেকে চাইছি, তাই না?

আবার নিজের খুব পছন্দের কোনো খাবার খাওয়ার স্বপ্নও দেখছেন অনেকে। তার কারণ লকডাউনে আমরা অতি প্রয়োজনীয় সামগ্রী ছাড়া আর কিছু পাচ্ছি না। তাই নিজের প্রিয় খাবার বা প্রিয় অন্য কোনো কিছু আমরা মিস করছি। মিস করছি নিজেদের পুরনো জীবন। সেই কারণে এই ধরনের স্বপ্ন আমাদের দেখা দিচ্ছে।
সূত্র : এই সময়

Read previous post:
ঠাকুরগাঁওয়ের টিকিয়াপাড়ার করোনায় আক্রান্ত পলাতক ববিতাকে পাওয়া গেছে

তৃতীয় মাত্রা পঞ্চগড় জেলার চাকলাহাট ইউনিয়নে করুহাট গ্রামে ববিতার পৈত্রিক বাড়ীতে তাকে পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন পঞ্চগড় জেলা প্রশাসন। করোনার...

Close

উপরে