Logo
সোমবার, ১৬ জুলাই, ২০১৮ | ১লা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ঢাকা মাতালো বনিএম

প্রকাশের সময়: ১১:১৩ পূর্বাহ্ণ - শনিবার | জুলাই ১৪, ২০১৮

তৃতীয় মাত্রা :

বিশ্বসেরা ডিসকো, আরএন্ডবি ও রেগে ধারার গানের দল বনি এমের কনসার্টে মাতলো রাজধানী ঢাকা। অনেক দূরের পথ পাড়ি দিয়ে পাশ্চাত্যের সঙ্গীত দলটির সাড়া জাগানো গানগুলো সরাসরি উপভোগ করবার সুযোগ পেল বাংলাদেশের  ভক্তরা। গতকাল শুক্রবার রাতে ‘বনি এম ফিচারিং লিজ মিশেল লাইভ ইন ঢাকা’ শিরোনামে গানের আসর বসে আগারগাঁওয়ের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেমে।
রাত পৌনে আটটায় মঞ্চে আসেন লিজ মিশেল ও বনি এমের বাকি তিন সদস্য। শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেই মিশেল পরিবেশনা শুরু করেন ‘সানি’ গানটি দিয়ে। রেশ কাটতে না কাটতেই আরেক বিখ্যাত গান ‘ডেডি কুল’। তারপর পরিবেশন করলেন ‘মামা বেকার’। এবার লিজ মিশেল বললেন নাচ আরো বাড়াতে হবে। তুলতে হবে সব হাত। সত্যি কেউ বসে রইলো না। একসঙ্গে সবাই হাত তুলে একসঙ্গে গাইলো অত্যন্ত জনপ্রিয় ‘হুররে হুররে ইটস এ হলি হলি ডে’। গানের মাঝখানে লিজ ষ্টেজ থেকে নেমে এলেন দর্শকদের সারিতে। শুরু হলো সেলফি তোলার হিড়িক। তারপর গাইলেন ‘ব্রাউন গার্ল ইন দ্য রেইন’। এরপর ধরলেন বিখ্যাত গান ‘রাসপুটিন’। তারপর সুরের সাগরে  ভাসালেন ‘বাই দ্য রিভার অব ব্যাবিলন’ গানটি গেয়ে। এসময় লিজ বাংলায় বললেন ‘তোমাদের ভালোবাসি’। জানালেন ১১ জুলাই ছিল তার জন্মদিন। একথা শুনে পুরো মিলনায়তন তাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ‘হ্যাপি বার্থডে’ গানটি গাইল। তারপর বিশ্বের সকলের শান্তির কামনায় গাইলেন বিটলসের বিখ্যাত গান ‘লেট ইট বি’।
বনি এম সত্তরের দশকের আলোড়ন তোলা ডিসকো গানের দল। ইউরো-ক্যারিবিয়ান চারজন কণ্ঠশিল্পীর এই গানের দলটির সৃষ্টি করেছিলেন জার্মান সঙ্গীত প্রযোজক ফ্রাঙ্ক ফ্যারিয়ার। বনি এমের চার সদস্য হলেন লিজ মিশেল, মারিয়া ব্যারেট, মেইজি উইলিয়ামস ও ববি ফারেল। বর্তমানে দলের প্রধান গায়িকা লিজ মিশেল ছাড়া বাকিরা নতুন সদস্য। তাদের প্রথম অ্যালবাম ‘টেক দ্য হিট অব মি’ প্রকাশ  হয় ১৯৭৬ সালে। প্রথম অ্যালবামে ‘ডেডি কুল’, ‘সানি’, টেক দ্য হিট ফর মি’, ‘বেবি ডু ইউ ওয়ানা বাম্প’, ‘নো ওমেন নো ক্রাই’ ও ‘ফিভার’ গানগুলো রয়েছে। অ্যালবামের প্রথম হিট সিঙ্গেল ‘ডেডি কুল’ যুক্তরাজ্যের টপ চার্টে স্থান করে নেয়। দ্বিতীয় অ্যালবাম ‘লাভ ফর সেল’ বের করে ১৯৭৭ সালে। ‘মা বেকার’, ‘বেলফাস্ট’, মাদারলেস চাইল্ড গানগুলো জনপ্রিয়তা পায়। ১৯৭৮ সালে প্রকাশ পায় অ্যালবাম ‘নাইটফ্লাইট টু ভেনাস’। অ্যালবাম তাদেকে এনে দেয় ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় সাফল্যা। ‘রিভার অব ব্যবিলন’, ‘রাসপুটিন’, ‘ব্রাউন গার্ল ইন দ্য রাইন’ গানগুলো অসম্ভব জনপিয়তা পায়। যুক্তরাষ্ট্রেও তারা ব্যাপক সাড়া পায়। পরের অ্যালবাম ‘ওশেনস অব ফ্যান্টাসি’ প্রকাশ পায় ১৯৭৯স সালে। সেখানে স্থান পায় তাদের ক্যারিয়ারের আরেক তুমুল জনপ্রিয় গান ‘হুররে হুররে ইটস আ হলি হলি ডে’। ‘হোল্ড অন আম কামিং’, ‘বাহামা মামা’র মতো জনপ্রিয় গানগুলোও এই অ্যালবামের। ১৯৮০ সালে আসে তাদের প্রথম সংকলন অ্যালবাম ‘দ্য ম্যাজিক অব বনি এম-টোয়েন্টি গোল্ডেন হিটস’। ‘বুনুনুজ’ শিরোনামের পঞ্চম অ্যালবামটি আসে ১৯৮১ সালে। এক পর্যায়ে দলের সদস্যদের মধ্যে বনিবনা হচ্ছিল না। বর্তমানে লিজ নতুন সদড্যদের নিয়ে সারা বিশ্বের নানা প্রান্তে বনি এমের গানে মাতিয়ে রাখছেন। ইত্তেফাক
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
Read previous post:
মান্নার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের নতুন ছবি ‘জ্যাম’

তৃতীয় মাত্রা : একটা সময় বাংলা সিনেমা দাপিয়ে বেড়িয়েছেন প্রয়াত চিত্রনায়ক মান্না। মান্নার প্রযোজনা সংস্থা ‘কৃতাঞ্জলী কথাচিত্র’ থেকে কিছুদিন আগে...

Close

উপরে