Logo
সোমবার, ১৬ জুলাই, ২০১৮ | ১লা শ্রাবণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

‘ইহরাম’ কি ও কেন?

প্রকাশের সময়: ২:৩০ পূর্বাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | জুলাই ১২, ২০১৮

তৃতীয় মাত্রা :

হজ আল্লাহ তাআলা কর্তৃক অকাট্য দলিলের ভিত্তিতে জারিকৃত ফরজ ইবাদত। হজ ও ওমরার ইবাদতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও প্রথম রুকনই হলো ইহরাম। ইহরাম সম্পর্কে আমাদের অনেকেরই কোনো ধারণা নেই। অথচ হজ ও ওমরা পালনে ইহরাম বাঁধা হলো ফরজ। সংক্ষেপে ইহরাম কি? তার পরিচয় ও প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরা হলো-

ইহরাম কি?
اَلْاِحْرَامُ (ইহরাম) শব্দটি حَرَامٌ (হারাম) শব্দ থেকে এসেছে। যার অর্থ হলো কোনো জিনিসকে নিজের ওপর হারাম বা নিষিদ্ধ করে নেয়া। আর এ ইহরামই হজ ও ওমরার প্রথম ফরজ কাজ। পুরুষদের জন্য সেলাইবিহীন দুই টুকরো সাদা কাপড় আর নারীদের জন্য স্বাচ্ছন্দ্যময় শালীন পোশাক পরিধান করাই হলো ইহরাম।

ইহরাম কেন?
এ কারণেই হজ ও ওমরা পালনকারী ব্যক্তি ইহরামের মাধ্যমে নিজের ওপর স্ত্রী সহবাস, মাথার চুল, হাতের নখ, গোঁফ, বগল ও নাভির নিচের ক্ষৌর কর্যাদি, সুগন্ধি ব্যবহার, সেলাই করা পোশাক পরিধান এবং শিকার করাসহ কিছু বিষয়কে হারাম করে নেয়।

প্রকাশ থাকে যে-
উল্লেখিত কাজগুলো পাশাপাশি ‘হজ ও ওমরা’ এ দুটির মধ্যে যেটি আদায় করার ইচ্ছা করবে; তার নিয়ত করে চার ভাগে উচ্চ স্বরে তিন বার তালবিয়া পাঠ করাকেই ইহরাম বলে।

ইহরামের প্রয়োজনীয়তা
নামাজের জন্য যেমন তাকবিরে তাহরিমা বাধা হয়। তেমনি হজের জন্য ইহরাম বাধা হয়। তাকবিরে তাহরিমার দ্বারা স্বাভাবিক অবস্থার হালাল ও বৈধ কাজগুলো নামাজি ব্যক্তির জন্য নামাজ আদায়ের সময় হারাম হয়ে যায়।

ঠিক ইহরামের মাধ্যমেই হজ ও ওমরা পালনকারী ব্যক্তির জন্যও স্বাভাবিক অবস্থার অনেক হালাল কাজও হারাম হয়ে যায়। এ কারণেই হজ ও ওমরার জন্য ইহরামে ফরজ করা হয়েছে।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহর সব হজ ও ওমরা পালনকারীকে সঠিকভাবে ইহরাম বাধার ও ইহরাম বাধার করণীয় সম্পর্কে জানার তাওফিক দান করুন। আমিন।

Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com
Read previous post:
হজের প্রকার ও পরিচয়

তৃতীয় মাত্রা : চলছে হজের মাস। আল্লাহ তাআলা হজের মাস হিসেবে শাওয়াল, জিলকদ ও জিলহজকে নির্ধারণ করেছেন। হজ উপলক্ষে পবিত্র...

Close

উপরে