Logo
শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ | ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

তরুণসমাজকে দেশের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার আহ্বান রাষ্ট্রপতির

প্রকাশের সময়: ৮:৪০ অপরাহ্ণ - মঙ্গলবার | অক্টোবর ১৮, ২০১৬

161076_186তৃতীয় মাত্রা:

ঢাকা: রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, তরুণসমাজকে দেশের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার জন্য স্কাউটিং একটি যথাযথ প্ল্যাটফর্ম। এসময় তিনি সকলকে বিশেষ করে স্কাউটদের মাদকের অপব্যবহার ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন।
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মঙ্গলবার ওসমানী স্মৃতি মিলানায়তনে বাংলাদেশ স্কাউটসের জাতীয় কাউন্সিলের ৪৫তম বার্ষিক সাধারণ সভার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে এ আহ্বান জানান।
রাষ্ট্রপতি বলেন, তিনি জেনে আনন্দিত যে ‘বিশ্ব স্কাউটিং-এর ভিশন অনুযায়ী ২০২৩ সালে স্কাউটিং শিক্ষাবিস্তারে বিশ্বের প্রধানতম যুব আন্দোলনে পরিণত হবে। যেখানে ১০০ মিলিয়ন যুবক তাদের সমাজে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে কাজ করবে।
দেশে বর্তমানে ১৫ লাখ স্কাউট রয়েছে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, ২০২১ সালে স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে দেশের স্কাউট সংখ্যা ২১ লাখে উন্নীত করার লক্ষ্য রয়েছে।
দেশে বর্তমানে গার্লস স্কাউটের সংখ্যা মাত্র এক লাখ ৮০ হাজার উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি সংস্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে গার্ল স্কাউটের সংখ্যা বাড়ানোর আহ্বান জানান।
রাষ্টপতি আবদুল হামিদ বলেন দেশে স্কাউট আন্দোলন জোরদার করতে সরকার সর্বাত্বক সহযোগিতা দিচ্ছে। সরকার ইতোমধ্যে ১২২ কোটি টাকা ব্যয় সাপেক্ষে ‘বাংলাদেশ স্কাউটিং সম্প্রসারণ ও স্কাউট শতাব্দী ভবন নির্শাণ প্রকল্প’ অনুমোদন করেছে। এছাড়া প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে ‘প্রাথমিক বিদ্যালয়সমূহে বাংলাদেশ স্কাউট সম্প্রসারণ প্রকল্প’ সরকারের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ প্রকল্প দেশে স্কাউটিং সম্প্রসারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।
রাষ্ট্রপতি সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এসব কর্মসূচি চালু করতে আন্তরিক প্রচেষ্টা চালানোর জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, স্কাউটিং দেশের শিশু-কিশোরদের জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ গড়তে একটি স্বনির্ভর ও সুশিক্ষিত জাতি হিসেবে গড়ে উঠতে সহায়তা করবে।
রাষ্ট্রপতি স্কাউটের সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘রৌপ্য ব্যাঘ্র’ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘রৌপ্য ইলিশ, ‘প্রেসিডেন্ট’স রোভার স্কাউট’ এবং ‘প্রেসিডেন্ট’স স্কাউট’ পুরস্কারপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানান।
অনুষ্ঠানে ৮ স্কাউটকে ‘রৌপ্য ব্যাঘ্র’ ও ১৮ জনকে ‘রৌপ্য ইলিশ’ পুরস্কার দেয়া হয়।
বাংলাদেশ স্কাউটসের সভাপতি আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন স্কাউটসের প্রধান জাতীয় কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান।

Read previous post:
মেডিকেল ও ডেন্টালে আসন বাড়ছে না

এমবিবিএস ও বিডিএস কোর্সে আগামী শিক্ষাবর্ষে কোনো বেসরকারি মেডিকেল কলেজে আসন সংখ্যা বাড়ানো হবে না। ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে অনুমোদিত আসন সংখ্যার...

Close

উপরে