Logo
বুধবার, ০৫ আগস্ট, ২০২০ | ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ইভিএমে ঢাকার ২ সিটি নির্বাচন জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে

প্রকাশের সময়: ৯:৪৪ অপরাহ্ণ - বুধবার | ডিসেম্বর ১১, ২০১৯

তৃতীয় মাত্রা

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন জানুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হবে। আগামী সপ্তাহে এই নির্বাচনের তফসিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। বুধবার নির্বাচন ভবনে অনুষ্ঠিত কমিশন সভা শেষে নির্বাচন কমিশন সচিব মো. আলমগীর এসব তথ্য জানান।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২ (আরপিও)-এর সংশোধনী ও সংসদীয় আসনের সীমানা নির্ধারণ আইন ২০১৯ সংশোধনীর খসড়া চূড়ান্তকরণ, নির্বাচন প্রশিক্ষণ বাজেটের প্রমিতকরণ নীতিমালা, একাদশ সংসদ নির্বাচনের প্রতিবেদন প্রকাশ এবং নির্বাচন কমিশনের কার্যক্রমের ওপর প্রামাণ্যচিত্র প্রকাশের বিষয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকে সীমানা নির্ধারণ আইনের খসড়া চূড়ান্ত হলেও আরপিও’র বিষয়টি চূড়ান্ত হয়নি। বৈঠকে ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি বলে ইসি সচিব জানান।

তবে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন তিনি। আগামী সপ্তাহে কমিশন সভায় এই নির্বাচনের বিষয়টি চূড়ান্ত হবে বলে তিনি জানান।

মো. আলমগীর বলেন, জানুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরশেন নির্বাচন হবে। তবে কত তারিখে ভোট হবে এ বিষয়ে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আগামী সপ্তাহে কমিশনের সভা হবে। ওই সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। ওই সময় ভোটের তারিখ ও তফসিলের বিষয়টি জানা যাবে।

জানা যায়, একই দিনে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে ভোটগ্রহণের পরিকল্পনা করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

ইসি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এ দুই সিটিতে ভোটগ্রহণে গতানুগতিক ব্যালট পেপারের পরিবর্তে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করা হবে।

নির্বাচন কমিশনার শাহাদৎ হোসেন চৌধুরী বলেন, আমরা নীতিগতভাবে দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচন জানুয়ারিতে নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং ডিসেম্বর মাসে তফসিল ঘোষণা করা হবে।

ইসির সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর বলেন, ইসি ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহে দুই সিটির তফসিল ও ২০২০ সালের জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে ভোটের আয়োজন করবে। পুরো নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করা হবে।

কমিশন শিগগিরই তফসিল ও ভোটগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করবে জানিয়ে ইসি কর্মকর্তা আরো বলেন, ইসি সচিবালয় এ নির্বাচনে বিদ্যমান ভোটার তালিকাই ব্যবহার করবে। দেশের হালনাগাদ ভোটার তালিকা দুই সিটি নির্বাচনের পর প্রকাশ করা হবে।

ইসি সচিবালয় দুটি গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ পরিচালনার জন্য নির্বাচন কর্মকর্তা- প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং অফিসারদের তালিকা করার পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

কর্মকর্তারা বলেন, ইতিমধ্যে নির্বাচন কর্মকর্তাদের প্রাথমিক প্যানেল তৈরি করার জন্য ঢাকা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও থানা নির্বাচন কর্মকর্তাদের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

 

Read previous post:
হবিগঞ্জ আওয়ামী লীগের সভাপতি জাহির, সম্পাদক আলমগীর

তৃতীয় মাত্রা আবারও হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট আবু জাহির। আর সাধারণ সম্পাদক...

Close

উপরে