Logo
বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ২৮শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সার্টিফিকেট তুলতে অনলাইন সুবিধা পাচ্ছেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা

প্রকাশের সময়: ৮:১৩ অপরাহ্ণ - সোমবার | ডিসেম্বর ২, ২০১৯

তৃতীয় মাত্রা

সার্টিফিকেট তুলতে এখন থেকে অনলাইন সুবিধা ভোগ করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীরা। ঢাবির আইসিটি সেল ও ডাকসুর তথ্য প্রযুক্তি সম্পাদকের উদ্যোগে এ সুবিধা চালু করা হয়।

সোমবার থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীরা তাদের সনদপত্র উত্তোলনের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। এতে করে সার্টিফিকেট তুলতে গিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বিল্ডিংয়ের বিভিন্ন ‘বিড়ম্বনা’ থেকে মুক্তি মিলবে বলে জানান শিক্ষার্থীরা। তবে সার্টিফিকেট উত্তোলনের অনলাইন সুবিধা অধিভুক্ত কোনো কলেজের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না বলেও জানান সংশ্লিষ্টরা।

শিক্ষার্থীরা এখন থেকে সনদপত্র ও নম্বরপত্র উত্তোলনের আবেদন অনলাইনের মাধ্যমে করতে পারবেন। service.du.ac.bd/home থেকে এ সেবা পাওয়া যাচ্ছে। পর্যায়ক্রমে আরও বিভিন্ন সেবা এ তালিকায় যুক্ত হবে বলে জানা যায়।

অনলাইনে সার্টিফিকেট উত্তোলনের বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) তথ্য প্রযুক্তি সম্পাদক আরিফ ইবনে আলী  বলেন, আগে সার্টিফিকেট তুলতে গেলে শিক্ষার্থীরা রেজিস্ট্রার বিল্ডিংয়ে গিয়ে নানা বিড়ম্বনার শিকার হতো। অনেক সময় নষ্ট হতো। এখন থেকে শিক্ষার্থীরা অনলাইনে আবেদন করবে। দুইদিনের মধ্যে হল, বিভাগ ও লাইব্রেরি থেকে সবকিছুর ভেরিফিকেশন হবে। তারপর সার্টিফিকেট প্রস্তুত হলে অনলাইনে নোটিফিকেশন যাবে। এরপর শিক্ষার্থীরা তাদের কাঙ্ক্ষিত সার্টিফিকেট উত্তোলন করতে পারবে।

অনলাইন সুবিধা প্রদান প্রসঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সেলের পরিচালক ড. মোহাম্মদ আসিফ হোসেন খান বলেন, অনলাইনে সার্টিফিকেট উত্তোলনের ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের বার বার রেজিস্ট্রার বিল্ডিংয়ে আসতে হবে না। এক্ষেত্রে তারা একটু সুবিধা ভোগ করবে। তবে শিক্ষার্থীরা যে মনে করছে সার্টিফিকেট অনলাইনে দেবে তা নয় শুধুমাত্র আবেদন অনলাইনে করতে পারবে।

অনলাইনে আবেদনের পদ্ধতি

অনলাইনভিত্তিক সনদপত্র ও নম্বরপত্র উত্তোলন সেবার ওয়েবসাইটে বলা হয়, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের জন্য অনলাইনভিত্তিক বিভিন্ন সেবা প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ সকল সেবা পেতে হলে আবেদনকারীকে প্রথমে Sign Up করার মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। পরবর্তীতে Log in করার মাধ্যমে শিক্ষার্থীবৃন্দ স্ব-স্ব ড্যাশবোর্ডে যেতে পারবেন। ড্যাশবোর্ড থেকে কাঙ্ক্ষিত সেবার জন্য আবেদন করা যাবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে উল্লেখ করা আছে, সেবা গ্রহণের জন্য প্রত্যেক শিক্ষার্থী তার অনলাইন ড্যাশবোর্ড থেকে আবেদন করতে পারবেন। ড্যাশবোর্ড ব্যবহার করার জন্য শিক্ষার্থীকে প্রথমে সাইন-আপ করতে হবে। অনলাইনে আবেদন করার পর আবেদনকারীর তথ্য যাচাই করে অনলাইনেই তাকে একটি পে-স্লিপ প্রেরণ করা হবে।

ওই স্লিপটি প্রিন্ট করে জনতা ব্যাংকের যেকোনো শাখায় ফি জমা দেয়া যাবে। ফি জমা হওয়ার সাথে সাথে তা সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীর ড্যাশবোর্ডে দেখা যাবে। এছাড়াও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাব পরিচালকের দফতরেও তাৎক্ষণিকভাবে ওই তথ্য চলে যাবে।

তবে হল এবং লাইব্রেরি সংক্রান্ত আনুষ্ঠানিকতা অপরিবর্তিত থাকবে। নতুন পদ্ধতিতে হিসাবরক্ষণ অনেক দ্রুত ও সহজ হবে এবং স্বচ্ছতা বৃদ্ধি পাবে। আবেদন ফরম পূরণ করা থেকে শুরু করে সার্টিফিকেট/মার্কশিট উত্তোলন পর্যন্ত পুরো প্রক্রিয়াটি ৬টি ধাপে সম্পন্ন হবে, যার অগ্রগতি শিক্ষার্থী তার ড্যাশবোর্ড থেকে প্রত্যক্ষ করতে পারবেন।

Read previous post:
অবশেষে বিপিএলে আসছেন গেইল

তৃতীয় মাত্রা বিদেশি খেলোয়াড় কোটায় প্রথমে লটারিতে ডাকের সুযোগ পায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। সেই সুযোগে তারা ক্রিস গেইলকে দলে ভেড়ায়। ওয়েস্ট...

Close

উপরে