Logo
শনিবার, ২৩ নভেম্বর, ২০১৯ | ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রবল বৃষ্টিতে পানির নিচে চট্টগ্রাম

প্রকাশের সময়: ১০:০১ অপরাহ্ণ - রবিবার | নভেম্বর ১০, ২০১৯

তৃতীয় মাত্রা

প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ একেবারে দুর্বল হয়ে গেছে। উপকূলীয় এলাকা থেকে মহাবিপৎসংকেত তুলে নিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। তবে বুলবুলের রেশ আছে। এই রেশ আরও দুই দিন থাকবে। ঢাকা-চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে আগামী দুই দিন বৃষ্টি হবে।

এমন পরিস্থিতিতে দুপুরের পর থেকেই ভারী বৃষ্টি হচ্ছে বন্দরনগরী চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকায়। যার ফলে বেশ কিছু এলাকায় পানি জমতে শুরু করেছে। এর মধ্যে জামালখান, চকবাজার, বাকালিয়া, শুলকবহর, আগ্রাবাদ, হালিশহর, মুরাদপুর, বহদ্দারহাট, কাপাসগোলা, প্রবর্তক মোড়, কে বি আমান আলী রোড, ডিসি রোড, চাঁদ্গা, শোলশহর ২ নম্বর গেট, নাসিরাবাদ ও দেওয়ানবাজারের অনেক জায়গায় পানি জমে গেছে। এসব যায়গায় দুপুরের পর থেকেই মুষলধারে বৃষ্টি হচ্ছে।

চট্টগ্রাম আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ বলেন, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে বিকেল ৩টা পর্যন্ত পূর্বের ২৪ ঘণ্টায় মাত্র ১০ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছিল। কিন্তু বিকেল ৫টার পর থেকে একটানা ভারী বৃষ্টিপাত অব্যাহত আছে। ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে আগামীকালও আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকবে। বাতাসের গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ১৫ থেকে ১৮ কিলোমিটার বেগে। যা ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পেতে পারে। আগামী ২৪ ঘণ্টা মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে অতিরিক্ত বৃষ্টির ফলে পাহাড় ধসের ঘটনাও ঘটতে পারে। আর তাই এ বিষয়ে সচেতনতার জন্য মাইকিং করছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক)।

চসিকের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সম্ভাব্য দুর্যোগ-পরবর্তী সময়ের জন্য শুকনো খাবার, পর্যাপ্ত সুপেয় পানির ব্যবস্থা এবং চিকিৎসা সেবাদানের জন্য মেডিকেল টিম ও পর্যাপ্ত ওষুধপত্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

পাশাপাশি নগরবাসীকে যে কোনো জরুরি প্রয়োজনে ০৩১-৬৩০৭৩৯, ০৩১-৬৩৩৬৪৯ নম্বরে ফোন দেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

Read previous post:
শুরুতেই ফিরলেন লিটন-সৌম্য

  তৃতীয় মাত্রা : নাগপুরের স্লো উইকেটে বাংলাদেশকে ১৭৫ রানের বড় লক্ষ্য দিয়েছে ভারত। জবাবে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশ শুরুতে...

Close

উপরে