Logo
সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ | ৪ঠা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আজ দশ উদ্যোক্তার ভাগ্যের লড়াই: পুরষ্কার ১ কোটি টাকা

প্রকাশের সময়: ২:৩৭ অপরাহ্ণ - বুধবার | অক্টোবর ১৬, ২০১৯

 

তৃতীয় মাত্রা

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) চলছে দেশে প্রথমবারের মতো আয়োজিত ‘ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো-২০১৯’। ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ স্লোগানে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, আইডিয়া প্রজেক্ট, এটুআই এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) এর যৌথ উদ্যোগে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

প্রযুক্তিবান্ধব মানুষদের পাশাপাশি বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা, নানা শ্রেণীপেশার মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন ডিজিটাল পণ্য এবং তরুণ প্রজন্মের উদ্ভাবিত প্রযুক্তি দেখতে। সবার জন্য উন্মুক্ত প্রদর্শনী তবে প্রবেশের জন্য প্রদর্শনীর ওয়েবসাইট থেকে অ্যাপ ডাউনলোড করে নিবন্ধন করতে হবে।

মেলায় বুধবার সকালে গিয়ে দেখা যায়, ফটকের বাইরে দেশে তৈরি অ্যাম্বুলেন্স দাঁড়ানো। ভেতরে ঢুকতেই আইডিয়া প্রকল্পের নানা উদ্ভাবন নিয়ে হাজির তরুণ উদ্যোক্তারা। দোতলায় উঠতেই হাত বাড়িয়ে দিল রোবট টিভেট। দেশি রোবট স্যালুট দিয়ে জানাল তার নাম—টিভেট। আরেকটু এগোলেই দেখি রোবট ফুটবল খেলছে। দুটি বড় হলজুড়ে নানা প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য ও সেবা প্রদর্শন করছে।

মেলা ঘুরে এবং আয়োজকদের কাছ থেকে জানা যায়, মেলায় দেশীয় প্রযুক্তিপণ্য ও উদ্ভাবনকে প্রাধান্য দিয়ে শীর্ষ নতুন উদ্যোগ খুঁজে পেতে মেলার আগে মাসব্যাপী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে প্রচারমূলক কার্যক্রম চালানো হয়। সেখান থেকে নির্বাচিত সেরা ৩০টি উদ্ভাবন প্রদর্শিত হয় মেলায়। আর প্রদর্শনী শেষ হলে তরুণদের শীর্ষ ১০ উদ্যোগকে ১০ লাখ করে মোট ১ কোটি টাকা বঙ্গবন্ধু উদ্ভাবনী অনুদান (বিআইজি) দেওয়া হবে।

মেলায় অংশ নিয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচ শিক্ষার্থীর দল ফ্রাইডে ল্যাব। তাঁরা রোবট ভালোবেসে উদ্ভাবন করেছেন বাংলায় কথা বলা হিউম্যানোয়েড রোবট ‘লি’। লি দেখতে অনেকটা মানুষের মতো। দুই পায়ে হাঁটতে পারে, বাংলা ভাষা বুঝতে পারে, কথা বলতে পারে এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সাহায্যে বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে। এমনকি মানুষের চেহারা মনে রাখতেও পারে। লি মানুষের সঙ্গে করমর্দন করে, স্যালুট দেয়।

এ ব্যাপারে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ বলেন, ‘আমাদের এবারের মেলার মেড ইন বাংলাদেশের অ্যাম্বাসেডর হচ্ছে রোবট লি। এই লি আপনাদের এই মেলার তথ্য জানাবে। আপনারা পরিচিত হতে পারবেন তার সঙ্গে। এ ছাড়া স্থানীয় এবং বিদেশিদের মধ্যে বিপুলসংখ্যক বিনিয়োগকারী এক্সপোতে অংশ নিয়েছেন, যেখানে তাঁরা স্থানীয় উদ্ভাবনগুলো দেখবেন এবং সেটি থেকে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারবেন।’

আজ প্রদর্শনীর শেষদিনে থাকছে নানা ধরনের কর্মসূচি। রয়েছে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা এবং চারটি সেমিনার। এ ছাড়াও এক্সপোর তিনদিনের সার্বিক আয়োজন নিয়ে একটি সমাপনী অনুষ্ঠান এবং অ্যাওয়ার্ড নাইট অনুষ্ঠিত হবে।

দিনের শুরুতেই ছিল চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হয়ে এই চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা চলে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফ্রেমে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীরা রোবট আঁকার এই দারুণ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।

এ ছাড়াও সারাদিনের আয়োজনে আরও ৪টি সেমিনার রয়েছে। ৪টি সেমিনারই অনুষ্ঠিত হবে উইন্ডি টাউন হল রুমে। দিনের শুরুতেই অর্থাৎ সকাল সাড়ে ১০টায় ছিল ‘ডিজিটাল সিকিউরিটি রিস্ক অ্যান্ড অপরচুনিটি’ সেমিনারের শিরোনাম। ডিজিটাল নিরাপত্তা ঝুঁকি এবং সমাধান নিয়ে এই সেমিনারে প্রধান বক্তা হিসেবে ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম।

কী-নোট স্পিকার হিসেবে ছিলেন বিভাগের অতিরিক্ত সচিব রাশেদুল ইসলাম। ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের প্রধান ড. সাইদ আকতার হোসেনের মডারেশনে এতে থাকবেন ৮ জন প্যানেল বক্তা।

সকাল সাড়ে ১১টায় শুরু হয় আরেকটি সেমিনার। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে হার্ডওয়্যার ইন্ডাস্ট্রির সম্ভাবনা এই শিরোনামের সেমিনার। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ ইকোনমিক প্রসেসিং জোন অথরিটির চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী। কী-নোট স্পিকার হিসেবে ছিলেন স্যামসাং মোবাইলের দেশীয় পার্টনার ফেয়ার ইলেকট্রনিক্সের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা মেসবাহ উদ্দিন। ডাটাবেস সিস্টেমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশেদ কামালের মডারেশনে এতে ছিলেন পাঁচজন প্যানেল বক্তা। বিকেল ৪টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত রয়েছে দিনের তৃতীয় সেমিনার। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান এই সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন সংসদ সদস্য শেখ ফজলে নূর তাপস এবং সংসদ সদস্য বেনজীর আহমেদ।

গেস্ট অব অনার হিসেবে থাকবেন অধ্যাপক জাফর ইকবাল। ডেভোটেক টেকনোলজি পার্কের চেয়ারম্যান রায়হান শামসির মডারেশনে কি-নোট স্পিচ দেবেন ‘সোনালি ব্যাগ’ এর আবিষ্কারক ড. মুবারক আহমেদ খান। বিজিএমইএ’র সভাপতি রুবানা হকসহ আরও পাঁচ জন বক্তা থাকবেন প্যানেলিস্ট হিসেবে।

এ ছাড়াও দিনের শেষ সেমিনার ‘মেইড ইন বাংলাদেশ-ওয়ে ফরওয়ার্ড’ শুরু হবে বিকেল সাড়ে ৫টায়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এবং আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

উইন্ডমিল অ্যাডভারটাইজিং লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী সাব্বির রহমান তানিমের মডারেশনে সেমিনারে থাকবেন চারজন প্যানেলিস্ট বক্তা। এ সেমিনারটির মধ্যেই দিয়ে শেষ হবে এবারের ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো-২০১৯। এ ছাড়াও প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে এ তিনদিনের সার্বিক আয়োজন নিয়ে একটি সমাপনী অনুষ্ঠান এবং অ্যাওয়ার্ড নাইট অনুষ্ঠিত হবে।

Read previous post:
গণফোরাম সভাপতির গাড়িবহরে হামলার প্রতিবেদন ২০ নভেম্বর

তৃতীয় মাত্রা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ২০...

Close

উপরে