Logo
মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৯ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস আজ

প্রকাশের সময়: ৪:০৮ অপরাহ্ণ - শনিবার | সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯

 

তৃতীয় মাত্রা :

বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস আজ। জলাতঙ্ক একটি মরণব্যাধী। মূলত কুকুর কামড়ালে মানবদেহে রোগটি সংক্রামিত হয়। এখনও বিশ্বে প্রতি ৯ মিনিটে ১ জন ও বছরে ৫৫ হাজার মানুষ এ রোগে মৃত্যুবরণ করে।

তিন বছরে তিন রাউন্ড টিকা দিলে কুকুর থেকে মানুষ বা কুকুর ও অন্যান্য প্রাণীতে জলাতঙ্ক সংক্রমণের হার শূন্যের কোঠায় নেমে আসে, যা বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত।

তাই জলাতঙ্ক রোগ প্রতিরোধের জন্য কুকুর যে না কামড় সে ব্যাপারে সাবধান থাকতে হবে। আর কুকুর যদি কোনোভাবে কামড় দেয় তাহলে কী করবেন।

 কুকুর কামড়ালে কী করবেন?

১. কুকুড় কামড়ালে ক্ষত স্থানে চাপ দিয়ে কিছুক্ষণ ধরে রাখুন। এতে রক্ত পরা বন্ধ হয়ে যাবে। এরপর প্রথমে পরিষ্কার পানি দিয়ে ক্ষত পরিষ্কার করুন। প্রয়োজনে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যবহার করতে পারেন জায়গাটি ভালোভাবে পরিষ্কারের জন্য। এটি ব্যাকটেরিয়া ও জীবাণু পরিষ্কার করতে সাহায্য করবে।

২. ক্ষতস্থানটিতে অ্যান্টিবায়েটিক ক্রিম বা অয়েন্টমেন্ট লাগিয়ে তার পর একটি গজ দিয়ে ভাল করে ব্যান্ডেজ করে ফেলুন।

৩. যদি অনেক বেশি ব্যথা হয়, তবে ব্যথানাশক ওষুধ খেতে পারেন। চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে প্যারাসিটামলজাতীয় ব্যথার ওষুধ খাওয়া যেতে পারে এ সময়।

৪. কুকুর কামড়ানোর পর দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যান। চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে র্যাবিস ভ্যাকসিন দিন। এটি খুব জরুরি বিষয় কুকুর কামড়ানোর পর।

চিকিৎসক

প্রাথমিক চিকিৎসার পর দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে এবং তার চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে টিটেনাস ইনজেকশন দিতে হবে। কুকুর কামড়ের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই ইনজেকশন দেওয়া উচিত। রাস্তার কুকুরের ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে পরবর্তী ওষুধ, ইনজেকশন বা প্রয়োজনীয় চিকিত্সা অবশ্যই করাতে হবে।

Read previous post:
সত্যপ্রিয়কে দেখতে বিএসএমএমইউতে ওবায়দুল কাদের

তৃতীয় মাত্রা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন একুশে পদকপ্রাপ্ত পণ্ডিত রামু কেন্দ্রীয় সীমা মহাবিহারের অধ্যক্ষ সত্যপ্রিয় মহাথেরকে...

Close

উপরে