Logo
সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ | ২৫শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বরগুনার সেই নয়ন বন্ডের বাসায় চুরি

প্রকাশের সময়: ৫:০৮ অপরাহ্ণ - শুক্রবার | আগস্ট ১৬, ২০১৯

তৃতীয় মাত্রা

বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যা মামলার প্রধান আসামি পুলিশের সাথে বন্দুকযদ্ধে নিহত নয়ন বন্ডের বাসায় চুরি হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতের কোনো এক সময় তালা ভেঙে কে বা কারা বাসায় প্রবেশ করে প্রায় ১০ ভরি স্বর্ণালংকার, অর্ধ লক্ষাধিক নগদ টাকা ও গুরুত্বপূর্ণ কিছু কাগজপত্র নিয়ে গেছে বলে নয়নের মা সাহিদা বেগমের দাবি। তিনি এ ব্যাপারে বরগুনা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন বলেও জানান।

সাহিদা বেগম জানান, তিনি এক আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। সকালে প্রতিবেশীরা তার বাসার তালা ভাঙা দেখতে পেয়ে খবর দেন। খবর পেয়ে তিনি বাসায় এসে দরজার তালা ভাঙা দেখতে পান। পরে ঘরে প্রবেশ করে আসবাবপত্র এলোমেলা দেখে বাসায় থাকা নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার খুঁজতে থাকেন।

নয়ন বন্ডের মা সাহিদা বেগম আরো জানান, নয়নের কূলখানির জন্য বাসায় তিনি ৪১ হাজার টাকা রেখেছিলেন। এছাড়াও দেড় ভরি ওজনের কানের ঝুমকা, আট আনা ওজনের কানের রিং, তিন ভরি ওজনের গলার হার, তিন ভরি ওজনের হাতের রুলি ও এক ভরি ওজনের মাথার টিকলি ছিলো। তার বড় ছেলে মিরাজের স্ত্রীর কক্ষে রাখা ১৪ হাজার টাকা, নাতনীর গলার আট আনা ওজনের স্বর্ণের চেইন ও দেড় ভরি ওজনের তিনটি আঙটির খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। সবকিছুই রাতের আঁধারে চোরেরা চুরি করে নিয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। নয়নের কিছু কাগজপত্র ও জমির দলিলপত্রও চুরি হয়েছে বলে তিনি পুলিশের কাছে দেয়া বিবরণে উল্লেখ করেন।

নয়ন বন্ডের বাসার পাশে অপর এক বাসার ভাড়াটিয়া আনোয়ার হোসেন জানান, সকালে তিনি বাসা থেকে বের হয়ে নয়নের বাসার তালা ভাঙা অবস্থায় দেখতে পেয়ে নয়নের মাকে মুঠোফানো বিষয়টি জানান। পরে তিনি এসে বাসায় প্রবেশ করে ঘরে থাকা টাকা ও স্বর্ণালংকার খুঁজে পাননি।

এ ব্যাপারে বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবির হোসেন মাহমুদ জানান, নয়নের মা চুরির খবরটি জানিয়েছেন। তার বাসায় পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের পর আমরা ব্যবস্থা নেবো।

Read previous post:
কাশ্মীর নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসছে নিরাপত্তা পরিষদ

তৃতীয় মাত্রা চীনের অনুরোধে কাশ্মীর ইস্যুতে রুদ্ধদ্বার বৈঠকে বসছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। আজ শুক্রবার চূড়ান্ত গোপনীয়তার মধ্যে জম্মু ও কাশ্মীরের...

Close

উপরে