Logo
শনিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৯ | ৯ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

‘জাতীয় মৎস্য পুরস্কার ২০১৯’ স্বর্ণপদকে ভূষিত হলো নৌবাহিনী

প্রকাশের সময়: ৮:১০ অপরাহ্ণ - বৃহস্পতিবার | জুলাই ১৮, ২০১৯

তৃতীয় মাত্রা

দেশের মৎস্য সম্পদ উন্নয়ন ও সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ ব্যবস্থাপনায় অনন্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ এ বছর ‘জাতীয় মৎস্য পুরস্কার ২০১৯’ এ স্বর্ণপদক অর্জন করেছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (কেআইবি) মিলনায়তনে নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরীর হাতে স্বর্ণপদক তুলে দেন।

এরপর দেশের মৎস্য সম্পদ উন্নয়নে নৌবাহিনীর অবদানের বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরতে নৌসদর দফতরে একটি প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। এতে পরিচালক নৌ অপারেশান্স কমডোর মাহমুদুল মালেক দেশের মৎস্য সম্পদ উন্নয়ন ও সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ ব্যবস্থাপনায় নৌবাহিনীর বিভিন্ন কার্যক্রমসমূহ তুলে ধরেন। বর্তমান সরকারের সময়োপযোগী ও কার্যকরী নির্দেশনায় দেশের আভ্যন্তরীণ নদ-নদী ও সমুদ্র উপকূলীয় এলাকায় সারা বছর বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও কোস্ট গার্ডের ‘অপারেশান জাটকা’ এবং ‘মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান’ পরিচালনার ফলে বিগত ১০ বছরে ইলিশ উৎপাদনের গড় প্রবৃদ্ধি ৫.২৬ শতাংশে উন্নীত করা সম্ভব হয়েছে। এর ফলে ইলিশ আহরণে বাংলাদেশ বর্তমানে শীর্ষস্থানে অবস্থান করছে। পাশাপাশি পৃথিবীর প্রায় দুই-তৃতীয়াংশের অধিক ইলিশ উৎপাদনকারী দেশ হিসেবে বাংলাদেশ বিশ্বে সুপরিচিতি লাভ করেছে।

উল্লেখ্য, গত ২০০৮-২০০৯ সালে দেশে ইলিশের মোট উৎপাদন ছিল ৩.১৩ লক্ষ মেট্রিক টন, ২০১৭-২০১৮ সালে তা বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে ৫.১৭ লক্ষ মেট্রিক টনে, যা দেশের মোট মৎস্য উৎপাদনের প্রায় ১২ শতাংশ এবং এর চলতি বাজার মূল্য প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকা। বাংলাদেশের জিডিপি-তে ইলিশ মাছের অবদান প্রায় শতকরা ১ ভাগ। নৌবাহিনীর নিয়মিত ও কার্যকরী অভিযান পরিচালনার ফলেই দেশের বাজারে ইলিশের প্রাচুর্যের পাশাপাশি বিদেশেও রফতানি করা সম্ভব হচ্ছে, যা আমাদের জাতীয় অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে।

প্রসঙ্গত, জাতীয় সম্পদ ইলিশ রক্ষায় বাংলাদেশ নৌবাহিনী ২০০১ সাল থেকে প্রতি বছর ‘অপারেশান জাটকা’ এবং ‘মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান’ পরিচালনা করে আসছে। এ অভিযানে নৌবাহিনীর পাঁচ থেকে সাতটি জাহাজ সার্বক্ষণিক দেশের আভ্যন্তরীণ নদ-নদী ও সমুদ্র উপকূলীয় এলাকায় মোতায়েন থাকে। এর ফলে বিপুল পরিমাণ অবৈধ জাল ও নৌকা আটক এবং পোনা উদ্ধার করা সম্ভব হচ্ছে। গত ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরে নৌবাহিনী অপারেশান জাটকা ও মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান পরিচালনা করে আনুমানিক ৩৩৮ কোটি টাকা মূল্যমানের অবৈধ জাল, নৌকা ও পোনা উদ্ধার করে। ‘জাতীয় মৎস্য পুরস্কার ২০১৯’ অর্জন নৌবাহিনীর প্রতিটি নৌসদস্যের কর্তব্যনিষ্ঠা, একাগ্রতা ও পরিশ্রমের স্বীকৃতি। এই গৌরবময় অর্জন নৌবাহিনীর সকল কর্মকর্তা ও নাবিকদের দেশ সেবায় আরও নিবেদিত হওয়ার অনুপ্রেরণা যোগাবে।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০০৩ সালে বাংলাদেশ নৌবাহিনী ‘অপারেশান জাটকা’ ও ‘মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান’ এ উল্লেখযোগ্য অবদান রাখায় ‘জাতীয় মৎস্য পুরস্কার ২০০৩’ এ স্বর্ণপদক অর্জন করে। ২০০১ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ নৌবাহিনী ‘অপারেশান জাটকা’ ও ‘মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান’ এর মাধ্যমে ৭৩ কোটি ৯৫ হাজার ৪২২ মিটার অবৈধ জাল, ২৫৮টি নৌকা, ১ লক্ষ ৬৭ হাজার ২৫০ কেজি জাটকা এবং ১১ লক্ষ ৫০ হাজার রেনু পোনা উদ্ধার করা হয়, যার আনুমানিক মূল্য ২ হাজার ৪৭৮ কোটি ৪৮ লক্ষ ৯ হাজার ৯৮৩ টাকা।

Read previous post:
কোরিয়ায় ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশের তিন সাঁতারু

তৃতীয় মাত্রা ফিনা ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নেবেন বাংলাদেশের তিন সাঁতারু জুয়েল আহমেদ, আরিফুল ইসলাম ও জোনায়না আহমেদ। ১২ জুলাই এ...

Close

উপরে