• Saturday, 10 December 2022
হাতির আক্রমণে মানুষের  মৃত্যু

হাতির আক্রমণে মানুষের মৃত্যু

সরোয়ার ঝিনাইগাতী ( শেরপুর)  প্রতিনিধি ঃ শেরপুর জেলা ঝিনাইগাতী উপজেলা  গুরুচরণ দুধনই গ্রামের ,রবিজল(৫৫) পিতাঃ- মৃত সামু শেখ গত শনিবার রাতে আনুমানিক সময় ২৩০০ঘটিকায়  বন্য হাতির আক্রমণে মৃত্যুবরন করেন।

হারিকেন কুপি বাতী আর  জেনারেটর এর সাহায্যে  চলতে হচ্ছে গ্রামের মানুষে।  এলাকাবাসীর দুইমোটো ভাত খেতে পারলেও রাতে ঘুমাতে পারে না ভয়ে, কখন কোন সময় সর্বনাশা বন্যা হাতি  আক্রমণ করবে, শিশু বাচ্চাদের দিন রাত্রি কাটে ভয়ে। যত রাত হয় তত ভয় হয়, কেউবা খাটের নিচে কেউবা মাছার নিচে ঘুমাই। কেউবা মশাল জ্বালিয়ে তারায়।হাতি করতেছে প্রচুর ক্ষতি হাজারে হাজার ফশলি শস্য খেয়ে যাচ্ছে হাতি, হাতির তান্ডবে অসহ্য বনের মানুষ। 

কাংসা ইউনিয়নের গুরুচরন দুধনই গ্রামের মৃত জালি শেখের ছেলে দিনমজুর আব্দল মোতালেবের বসৎঘর ভেঙে তছনছ করে দিলো পাহাড়ি বন্যহাতি।তার পাশেই গুরুচরণ দুধনই স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার ঘর,দরজা,বেড়ার টিন,বেঞ্চ ভেঙ্গে গুরিয়ে শেষ করে দেয়। ৪ নভেম্বর রোজ শুক্রবার রাতে ৩.০০ ঘটিকার সময় এ ঘটনা ঘটে।

 

বন্য হাতির তান্ডবে লন্ডভন্ড ঘরবাড়ি, আজও স্বস্তি  মিলেনাই এলাকাবাসীর, উপযুক্ত পদক্ষেপ ও সঠিক সিদ্ধান্ত নিলে  হয়তো বেঁচে যাবে অনেক মানুষের প্রাণ। 



ওই গ্রামের ইউপি সদস্য রহমত আলী জানান, শুক্রবার রাত ৩ টার দিকে অর্ধশত বন্যহাতির একটি দল আব্দুল মোতালেব বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় বন্য হাতির দল  ঘরের বেড়া ভেঙ্গে ঘরে থাকা ধান চাল খেয়ে সাবাড় করে দেয়। ঘরের সমস্ত মালামাল পায়ে পিষিয়ে ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়।এতে আব্দুল মোতালেবের বাড়িঘর ও স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার ভাংচুর সহ প্রায় ১.৫ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। 

পরে গ্রামবাসীরা এসে  মশাল জালিয়ে হৈহুল্লর চেচামেচি করে হাতি তাড়ানোর চেষ্টা করে। শনিবার উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম আব্দুল্লাহেল ওয়ারেজ নাইম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  ফারুক আল মাসুদ, থানার এসআই মোঃ ফরিদ উদ্দিন, বন কর্মকর্তা মকরুল ইসলাম আকন্দ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারুক আল মাসুদ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে আর্থিক সহায়তার আশ্বাস দেন। ইউপি সদস্য রহমত আলী তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার বিতরন করেন। এছাড়াও কাংশা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্ত আব্দুল মোতালেবকে আর্থিক সহায়তার আশ্বাস দেন।

comment / reply_from