• Saturday, 10 December 2022
সোনাইমুড়ীতে হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরির অভিযোগ

সোনাইমুড়ীতে হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরির অভিযোগ

খোরশেদ আলম,সোনাইমুড়ী(নোয়াখালী)প্রতিনিধিঃ
 
 
নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ী পৌর এলাকার গ্রীন লাইফ হাসপাতাল এন্ড ট্রমা সেন্টার নামক বেসরকারি হাসপাতাল থেকে নবজাতক চুরির অভিযোগ তুলেছে রোগীর স্বজনরা। এ নিয়ে রোগীর স্বজনরা ক্ষিপ্ত হয়ে হাসপাতালে এসে ডাক্তার ও কর্মকর্তা কর্মচারীদের ঘন্টাব্যাপী অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। রবিবার সকল ৯টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে।
 
রোগীর স্বামী শামসুল আলম অভিযোগ করে সাংবাদিকদের জানান,তানিয়া আক্তার(২৫) নামের গৃহবধূ সন্তান সম্ভাবণা হওয়ায় উপজেলার বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে আল্ট্রাসোনোগ্রাফি পরিক্ষা করে জানতে পারেন ২টি সন্তান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। শনিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে ঐ গৃহবধূ প্রসব ব্যথা দেখা দিলে সোনাইমুড়ী হাইস্কুল রোডে গ্রীন লাইফ হাসপাতাল এন্ড ট্রমা সেন্টারে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার আল্ট্রাসোনোগ্রাফি পরিক্ষা করার পরামর্শ দেন। পরিক্ষার রিপোর্টে ২টি সন্তানের আকার পাওয়া যায় বলে জানান সেখানকার ডাক্তার উম্মে হাবিবা।
 
রবিবার সকাল ৮টার দিকে হাসপাতালের ডাক্তার বখতিয়ার উদ্দিন সিজার অপারেশন করে রোগীর স্বজনদের একটি কন্যা সন্তান বুঝিয়ে দেন। এরপরই রোগীর স্বজনরা ২টি সন্তান না পেয়ে হাসপাতালে হট্টগোল শুরু করে। একপর্যায়ে হাসপাতালের ডাক্তার, কর্মকর্তা কর্মচারীদের প্রায় এক ঘন্টাব্যাপি অবরুদ্ধ করে রাখে।
 
গ্রীন লাইফ হাসপাতাল এন্ড ট্রমা সেন্টারের ডাক্তার উম্মে হাবিবা জানিয়েছেন,তিনি তানিয়া নামের গৃহবধূর আল্ট্রাসোনোগ্রাফির রিপোর্ট করেছেন। সেখানে ২টি সন্তান আছে বলে উল্লেখ করলেও সিজারে একটি বাচ্চা প্রসব হয়েছে। তার আল্ট্রাসোনোগ্রাফিতে ভুল হয়েছে বলেও জানান তিনি।
 
হাসপাতালের ডাক্তার বখতিয়ার উদ্দিন জানান,তিনি রোগীটির সিজার অপারেশন করিয়ে একটি সন্তান পেয়েছেন।
 
সোনাইমুড়ী থানার ওসি হারুন অর রশীদ জানান,হাসপাতালে রোগীর বাচ্চা নিয়ে হট্টগোল হওয়ার খবর শুনে পুলিশ পাঠিয়েছেন।
 

comment / reply_from