• Saturday, 10 December 2022

যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ: ইউক্রেনে পরমাণু হামলা নিয়ে আলোচনা করেছে মস্কো

যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ: ইউক্রেনে পরমাণু হামলা নিয়ে আলোচনা করেছে মস্কো

রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর জ্যেষ্ঠ কমান্ডাররা ইউক্রেনে পরমাণু অস্ত্রের হামলা/ব্যবহার নিয়ে আলোচনা করেছেন বলে দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন সরকারের দু’জন কর্মকর্তার ভাষ্য অনুযায়ী, মূলত কখন এবং কিভাবে ইউক্রেনের যুদ্ধক্ষেত্রে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার করা যেতে পারে, সেই বিষয় নিয়েই গত মাসে এ আলোচনা হয়। মার্কিন সরকারের ওই দুই কর্মকর্তা বিবিসির মার্কিন সহযোগী সিবিএস নিউজকে এসব কথা বলেন।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সামরিক বাহিনীর জ্যেষ্ঠ কমান্ডারদের ওই আলোচনায় সম্পৃক্ত ছিলেন না বলেও সিবিএসের খবরে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে হোয়াইট হাউস বলছে, গত কয়েক মাসে রাশিয়ার বাহিনীর পারমাণবিক অস্ত্রের সম্ভাব্য ব্যবহার নিয়ে তারা দিন-দিন আশঙ্কিত হয়ে উঠছেন। কিন্তু, যুক্তরাষ্ট্র এটিও জোর দিয়ে বলে আসছে যে ইউক্রেনে এ ধরনের অস্ত্র ব্যবহারের জন্য রাশিয়ার প্রস্তুতির কোনো স্পষ্ট লক্ষণ দেখা যায়নি। এর আগে, পশ্চিমা গোয়েন্দারা রাশিয়ার পারমাণবিক অস্ত্রগুলোর গতিবিধির যে মূল্যায়ন করেছেন, তার সাাথে বিষয়টি মেলে।

তবে, মস্কোকে তার পরমাণু অস্ত্রের সম্ভার ব্যবহারের জন্য স্থানান্তর করতে দেখা যায়নি। কিন্তু ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ পশ্চিমা দেশগুলোর বিরুদ্ধে ইচ্ছাকৃতভাবে বিষয়টিকে আরেও জোরালো করার জন্য অভিযুক্ত করেছেন। গত সেপ্টেম্বর মাসের শেষের দিকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন তার পারমাণবিক এবং পশ্চিমাবিরোধী বক্তব্যকে আরেও এক ধাপ বাড়িয়ে বলেছিলেন, রাশিয়া ও তার দখলকৃত ইউক্রেনীয় ভূখণ্ডকে রক্ষা করার জন্য হাতে থাকা সব উপায় ব্যবহার করবে মস্কো।

রাশিয়া পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার নিয়ে আলোচনা করেছে বলে, মার্কিন সংবাদমাধ্যমের খবর নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল হোয়াইট হাউসের জাতীয় নিরাপত্তা মুখপাত্র জন কারবিকে। এর জবাবে তিনি বলেছেন, ‘এই ঝুঁকির বিষয়ে গত কয়েক মাসে আমাদের উদ্বেগ ক্রমেই বেড়েছে। '

রাশিয়া গত সপ্তাহে তার নিয়মিত পারমাণবিক মহড়া চালায় বলে জানো গেছে। সে মহড়া পর্যবেক্ষণ করেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। মহড়ায় দেখানো হয় যে, রাশিয়া অধিক শক্তিশালী কৌশলগত অস্ত্র দিয়ে শত্রুর পারমাণবিক আক্রমণের প্রতিশোধ নিচ্ছে।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন যে, ইউক্রেনের সাথে যুদ্ধের ময়দানে কোনো সুবিধাজনক অবস্থায় নেই রাশিয়া। েই কারণেই যুদ্ধে তাদের পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারের আশঙ্কা বাড়ছে। তবে, কিছুদিন আগে ক্রেমলিন পাল্টা অভিযোগ করে, ইউক্রেন তেজস্ক্রিয় বোমা (ডার্টি বম্ব) ব্যবহার করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এর প্রতিক্রিয়ায় ইউক্রেন এর তার পশ্চিমা মিত্ররা দাবি করে, রাশিয়া এ ধরনের কথাবার্তা বলার মাধ্যমে নিজেই ইউক্রেনে এই ধরনের আক্রমণ চালানোর ক্ষেত্র প্রস্তুত করছে।

comment / reply_from

related_post