• Tuesday, 07 February 2023

মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করায় নিন্দার সম্মুখীন ইরান, আবারও বিক্ষোভ

মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করায় নিন্দার সম্মুখীন ইরান, আবারও বিক্ষোভ

সাম্প্রতিক সরকারবিরোধী বিক্ষোভের জন্য দণ্ডিত কারোও প্রথম মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার পরে নতুন করে প্রতিবাদ হয়েছে ইরানে। গত শুক্রবার ইরান সরকার আন্তর্জাতিক নিন্দারও সম্মুখীন হয়।

এ বিক্ষোভে অংশ নেওয়ায় গত বৃহস্পতিবার মোহসেন শেকারি নামের এক ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। তেহরানের রাস্তায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি ও আধাসামরিক বাহিনীর এক সদস্যকে আহত করার অভিযোগ ছিল তাঁর বিরুদ্ধে।

মানবাধিকার সংগঠনগুলো মোহসেনের এ বিচারিক কার্যক্রমকে ‘লোক দেখানো বিচার’-এর তকমা দিয়েছে।

জানা যায়, মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই গুটিকয়েক স্বজন ও নিরাপত্তা বাহিনীর উপস্থিতিতে শেকারির দাফন সম্পন্ন করা হয়।

মোহসেনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের ঘটনায় নতুন করে আবারও প্রতিবাদ হয়েছে ইরানে। এ সময় রাস্তায় প্রতিবাদকারীদের বলতে শোনা যায়, ‘আমাদের মোহসেনকে ওরা নিয়ে গিয়ে ফিরিয়ে দিয়েছে মৃতদেহ’। ‘স্বৈরাচারীরা নিপাত যাক’-এর মতো স্লোগানও দিয়েছেন প্রতিবাদকারীরা। ভবিষ্যতে আরো প্রতিবাদের ডাক দেওয়া হয়েছে।’

এছাড়া, দেশের বাইরেও চলছে প্রতিবাদের পরিকল্পনা। এর আগে বার্লিন ও প্যারিসসহ বিশ্বের বিভিন্ন শহরে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হয়। বিদেশে কর্মসূচির আয়োজন করা ইরানি ও কানাডীয় বিক্ষোভকারী হামেদ এসমায়েলিয়ন জানান, শনিবার-রবিবার নতুন প্রতিবাদ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এক বিবৃতিতে মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের এ ঘটনায় তারা উদ্বেগ জানিয়ে বলেছে, ‘মৃত্যুদণ্ডটি ইরানের কথিত বিচারব্যবস্থার অমানবিকতা তুলে ধরেছে, যেখানে আরো অনেকে একই নিয়তির অপেক্ষায় রয়েছে।’

অসলোভিত্তিক ইরান মানবাধিকার (আইএইচআর) সংস্থার পরিচালক মাহমুদ আমিরি-মোঘাদ্দাম এ বিষয়ে বলেছেন, ‘মোহসেন শেকারিকে কোনো আইনজীবী ছাড়া তড়িঘড়ি করে এবং অন্যায্যভাবে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ’ তিনি এর দৃঢ় আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন, যাতে ইরান সরকার এ রকম ঘটনা আর না ঘটাতে পারে।’

এছাড়া, পশ্চিমা দেশগুলোর সরকারও মোহসেন শিকারির মৃত্যুদণ্ডের ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে। আর ওয়াশিংটন একে ‘ভয়ংকর বাড়াবাড়ি’ হিসেবে দেখছে। এ ব্যাপারে জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আনালেনা বায়েরবক বলেছেন, ‘মৃত্যুদণ্ডের হুমকি স্বাধীনতার কণ্ঠরোধ করবে না।’ এ বিষয়ে যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেমস ক্লেভারলি বিশ্বকে এটি এড়িয়ে না যাওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন। অন্যদিকে, এ ঘটনায় ‘দুঃখ প্রকাশ’ করা হয়েছে জাতিসংঘের মানবাধিকার সংস্থার পক্ষ থেকেও। -সূত্র : এএফপি

comment / reply_from