• Saturday, 28 January 2023

ভারতের দিল্লির শতাব্দীপ্রাচীন জামে মসজিদে নারীর প্রবেশ নিষেধ!

ভারতের দিল্লির শতাব্দীপ্রাচীন জামে মসজিদে নারীর প্রবেশ নিষেধ!

ভারতের দিল্লির শতাব্দীপ্রাচীন জামে মসজিদে শুধু দেশের থেকে নয় বরং বিদেশ থেকেও হাজার-হাজার পর্যটক আসেন। কেউ আসেন ধর্মীয় কারণে আবার কেউ বা এর ইতিহাস জানতে এবং স্থাপত্য দেখতে। সম্প্রতি, সেই জামে মসজিদের প্রধান দরজায় নারীর প্রবেশ নিষেধ বলে নোটিশ টাঙানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে সেই নোটিশ বেশি মানুষের চোখে না পড়লেও এ ব্যাপারটি জানাজানি হতেই নানা ধরনের শুরু হয়েছে বিতর্ক। তাই, জামে মসজিদের শাহি ইমাম বিবৃতি দিতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানা যায়।

যে নোটিশ টাঙানো হয়েছিলেঅ, তা আদৌ জামে মসজিদ কর্তৃপক্ষের কি না: এ বিষয়টি নিয়ে প্রথমে সংশয় দেখা দিয়েছিলো। এ ব্যাপারে শাহি ইমাম সৈয়দ আহমেদ বুখারি বলেন, 'আগে মসজিদ চত্বরে নারীর প্রবেশে কোনো নিষেধাজ্ঞা ছিল না। কিন্তু সম্প্রতি দেখা গেছে, মসজিদ চত্বরকে ডেটিংয়ের জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে। এ নিয়ে নানা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। সে কারণেই এই নোটিশ টাঙানো হয়েছে। তবে ধর্মীয় কারণে কেউ মসজিদে এলে তাকে ঢুকতে দেওয়া হবে।'

শাহি ইমামের এ বক্তব্যে স্পষ্ট হয়েছে যে কোনো নারীই মসজিদে ঢুকতে পারবেন না, এ বিষয়টি এমন না। তবে, সবাইকে ঢুকতে দেওয়া হবে না। এদিকে, ইমাম নিজেই জানিয়েছেন যে, এই নোটিশ দেওয়ার পরেও বেশ কিছু নারীকে মসজিদে ঢুকতে দেওয়া হয়েছে।

কিন্তু, এতেও যেন বিতর্ক থামছে না। অনেকেই এ বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন, কে কী কারণে মসজিদে আসছেন; তা ঠিক কে করবে? মসজিদের যে জায়গায় নামাজ পড়া হয়। সেখানে এমনিতেই সবাইকে ঢুকতে দেওয়া হয় না। কিন্তু, তার বাইরে ও চাতালে বহু মানুষ আসেন। অনেকেই আসেন ইতিহাস ও স্থাপত্য দেখতে। এখানে বহু বিদেশি পর্যটকও আসেন। তাদের ক্ষেত্রে কী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে? শুধু এটা-ই নয়, এখন প্রশ্ন উঠছে, 'ডেটিং' বন্ধ করতে শুধু নারীদের ওপরই এ ধরনের নিষেধাজ্ঞা কেন? পুরুষরা কি, সে কাজ করছেন না?

কিছুদিন আগে মসজিদ কর্তৃপক্ষ দরজার বাইরে লিখে দিয়েছিলেন, ‘মসজিদ চত্বরে মিউজিক ভিডিও শুট করা যাবে না। নারী-পুরুষ-নির্বিশেষে সে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। তা নিয়ে কোনো বিতর্ক হয়নি। একইভাবে মসজিদ চত্বর ডেটিংয়ের জন্য ব্যবহার করা যাবে না, এমন নোটিশ কি দেওয়া যেত না? এসব প্রশ্ন উঠছে।’

এদিকে, দিল্লির নারী কমিশন একটি স্বতঃপ্রণোদিত মামলা করেছে। সেখানে কেন এই ধরনের নোটিশ জারি হলো, এটা নিয়ে মসজিদ কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে। যে বৈঠকে কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তার বিবরণীও চাওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে নারী কমিশনের প্রধান বলেছেন, ‘জামে মসজিদের নোটিশ নারী অধিকারের বিরোধী। এ নিয়ে সব রকম লড়াই তারা করবেন। বিষয়টিকে তারা গণতন্ত্রবিরোধী বলেও দাবি করেছেন।’ -সূত্র : ডয়চে ভেলে

comment / reply_from

related_post