• Saturday, 28 January 2023

বিল গেটসকন্যা মা’ হচ্ছেন: ইনস্টাগ্রামে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দনের বন্যা

বিল গেটসকন্যা মা’ হচ্ছেন: ইনস্টাগ্রামে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দনের বন্যা

সফটওয়্যার প্রস্তুতকারী জায়ান্ট মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা ও বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ ধনী বিল গেটস এবং তার সাবেক স্ত্রী মেলিন্ডা গেটসের মেয়ে জেনিফার গেটস (২৬) শিগগিরই মা’ হতে চলেছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ইনস্টাগ্রামে এক পোস্টে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেনিফার গেটস।

ইনস্টাগ্রামে একটি ছবিও পোস্ট করেছেনজেনিফার গেটস। সেখানে স্বামী নায়েল নাসারের (৩১) সাথে ঘনিষ্ট অবস্থায় বসে থাকতে দেখা গেছে তাকে।
ওই ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন ‘কৃতজ্ঞ’।

বিল গেটস অবশ্য মেয়ের (জেনিফার গেটস) ছবিতে কোনো মন্তব্য করেননি, তবে তার (জেনিফার) মা মেলিন্ডা কমেন্ট সেকশনে বলেছেন, ‘অনাগত বাচ্চার সঙ্গে সাক্ষাৎ এবং তোমাদের দু’জনকে অভিভাবক হিসেবে দেখা— আমরা জন্য এর চেয়ে আনন্দময়, উত্তেজনাকর কোনো কিছু আর হবে না।’

এদিকে, এই সংবাদ ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করার পরে রীতিমতো শুভেচ্ছাবন্যায় ভাসছেন জেনিফার গেটস। এক অনুসারী কমেন্টে লিখেছেন, ‘অসাধারণ লোকজনই কেবল এই পৃথিবীতে অসাধারণ মানুষ আনতে পারে। আপনাদের এই সুসংবাদ শোনার পর থেকে আমি খুবই আনন্দিত। আপনাদের জন্য ভালবাসা।’

আরেক জন লিখেছেন, ‘অভিনন্দন জেনিফার গেটস এবং নায়েল নাসার।’

কেউ আবার লিখেছেন, ‘অভিনন্দন!! ঈশ্বরের অপরিমিত আশীর্বাদ আপনাদের ওপর বর্ষিত হোক।’

জেনিফার গেটসের স্বামী নায়েল নাসার মিসরীয় বংশোদ্ভূত ও পেশায় একজন অশ্বারোহী এবং অশ্বারোহন প্রশিক্ষক। যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের ওয়েস্টচেস্টার জেলার নর্থ সালেম শহরে ১৪২ একরের একটি বাগানবাড়ি আছে বিল ও মেলিন্ডা দম্পতির। সেখানেই গত ২০২১ সালের ২১ অক্টোবর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন জেনিফার এবং নায়েল।

হটাৎ করে, যে বছর বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন জেনিফার-নায়েল: ওই বছরই ভেঙে যায় মেলিন্ডা এবং বিল গেটসের ২৭ বছরের দাম্পত্য জীবন। গত ২০২১ সালের আগস্টে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় দু’জনের মধ্যে।

তবে, দাম্পত্যজীবন ভেঙে গেলেও নিজেদের দাতব্য সংস্থা বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনে সহকর্মীর মতো কাজ করে যাবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন বিলেএবং মেলিন্ডা উভয়ই।

সাবেক এই দম্পতি গত ২০০০ সালে গঠন করেন বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। জানা গেছে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে মানবকল্যাণে কাজ করছে এই ফাউন্ডেশন। ইতোমধ্যে বিশ্বজুড়ে সংক্রামক ব্যাধির বিরুদ্ধে লড়াইেএবং শিশুদের টিকাদানে উৎসাহিত করতে কোটি কোটি ডলার ব্যয় করেছে ও এখনও করছে বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন।

comment / reply_from

related_post