Saturday, 26 November 2022
Logo

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া কারচুপি করে ‘বিশ্বসুন্দরী’ হয়েছিলেন!

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া কারচুপি করে ‘বিশ্বসুন্দরী’ হয়েছিলেন!

কারচুপি করে ‘বিশ্বসুন্দরী’র খেতাব জিতেছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, এমনটাই অভিযোগ করলেন সাবেক সুন্দরী ও বর্তমানে জনপ্রিয় ইউটিউবার লেইলানি ম্যাকোনে। গত ২০০০ সালে প্রিয়াঙ্কার সৌন্দর্য প্রতিযোগিতা জয়ের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ তুলেছেন এই সাবেক সুন্দরী।

সম্প্রতি, ‘মিস ইউএসএ’ প্রতিযোগিতায় মিস টেক্সাস আর'বনি গ্যাব্রিয়েলের জয়কে ঘিরে বিতর্ক শুরু হয়েছে। সাবেক অনেক সুন্দরী ও প্রতিযোগীদের মতে, ‘পক্ষপাতিত্ব’ করে জেতানো হয়েছিল মিস টেক্সাসকে। প্রতিযোগিতার আয়োজক এবং স্পন্সরদের উপরে আঙুল তুলছেন অনেকেই।

এদিকে, চলমান বিতর্কের মধ্যেই মুখ খুললেন আরেক সাবেক সুন্দরী ও প্রাক্তন মিস বার্বাডোজ লেইলানি। পক্ষপাতিত্বের ব্যাপরটিকে তিনিও সমর্থন করে দাবি করেছেন, ‘মিস ইউএসএ’ প্রতিযোগিতায় কারচুপি করা হয়েছে ও আয়োজক এবং স্পন্সরদের পক্ষপাতিত্বের কারণে মিস টেক্সাস জয় পেয়েছে। সেই সাথে পুরনো ক্ষত নিয়েও কথা বলেন তিনি। তিনি আঙুল তোলেন সাবেক বিশ্বসুন্দরী প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার দিকে।

সম্প্রতি, একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেছেন লেইলানি। তাঁর ভিডিওতে লেইলানি ভারতীয় সম্প্রচার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে স্পন্সর করা প্রতিযোগিতায় প্রিয়াঙ্কার প্রতি আয়োজকদের সমস্ত পক্ষপাতিত্ব ও পক্ষপাতের বিশদ বিবরণ দিয়েছেন। ওই ভিডিওতে লেইলানি বলেন, ‘মিস ওয়ার্ল্ডে আমিও আক্ষরিক অর্থে একই জিনিসের মুখোমুখি হয়েছি। আমার সাথেও অন্যায় করা হয়েছে। প্রিয়াঙ্কাকে আলাদাভাবে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছিল তখন।’

লেইলানির অভিযোগ করেন, ‘আমি মিস বার্বাডোজ ছিলাম এবং আমি মিস ওয়ার্ল্ডে প্রতিযোগিতা করেছিলাম। যে বছর আমি মিস ওয়ার্ল্ডে গিয়েছিলাম, সে বছর মিস ইন্ডিয়া সেই খেতাব জিতেছিল। মনে রাখবেন, মিস ইন্ডিয়া এর আগের বছরও জিতেছিল। তখনো স্পন্সর ছিল জি টিভি যা একটি ভারতীয় কেবল স্টেশন। তারা পুরো মিস ওয়ার্ল্ডকে স্পন্সর করেছিল।’

প্রিয়াঙ্কার প্রতি পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, ‘প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ‘সারং’ পরেই সাঁতারের রাউন্ড পাশ করেছিলেন। তিনিই একমাত্র ব্যক্তি যাকে তাঁর সারং লাগানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। বাকীরা বিকিনি পরেই করেছে এই রাউন্ড। এছাড়াও প্রিয়াঙ্কা তাঁর ত্বকের উজ্জ্বলতাকে আরো বাড়িয়ে তুলতে কিছু স্কিন টোন ক্রিম ব্যবহার করছিলেন যা ঠিকমতো কাজ করেনি। তাই তিনি তাঁর সারংটি সরাতে চাননি। বিচারকদের সামনেও তিনি সেটি পরেই নিজেকে উপস্থাপন করেছেন।’

লেইলিনা তাঁর ওই ভিডিওতে আরো দাবি করেছেন যে, ‘প্রিয়াঙ্কার খাবার তাঁর রুমে পৌঁছে দেওয়া হতো। তাঁর জন্য একক সংবাদ সম্মেলন করা হতো এবং এমনকি ফটোশুট সহ সমস্ত কিছুতেই তাকে বিশেষ সুবিধা দেওয়া হতো। তাঁর প্রতি আলাদা ফোকাস করা হতো আয়োজকদের পক্ষ থেকে।’

লেইলানি আরো প্রকাশ করেছেন যে, ‘যখন প্রিয়াঙ্কাকে বিজয়ীর মুকুট দেওয়া হয়েছিল তখন বাকি প্রতিযোগীরা অন্যায়ের প্রতিবাদ করার জন্য মঞ্চ ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন। এটি ছিল প্রতিবাদমূলক পদক্ষেপ।’

তবে, লেইলানির ভিডিওর বিষয়ে এখনো প্রিয়াঙ্কার কাছ থেকে কোনো বার্তা বা ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি। এতদিন পর কেন হঠাৎ এই বিষয় সামনে আনলেন সাবেক সুন্দরী লেইলানি, সেই উত্তরও খুঁজছেন অনেক ভক্ত অনুরাগী। -সূত্র : টাইমস অফ ইন্ডিয়া

comment / reply_from