• Tuesday, 06 December 2022
পাথরঘাটার,প্রশান্তিময় আর এক নাম নীলিমা পয়েন্ট

পাথরঘাটার,প্রশান্তিময় আর এক নাম নীলিমা পয়েন্ট

এস এম জসিম,পাথরঘাটা(বরগুনা)প্রতিনিধিঃ পাথরঘাটা বিষখালী নদীর মোহনায়, নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের এক লীলাভূমির নাম নীলিমা পয়েন্ট। প্রাকৃতির রূপ-লাবণ্যে ঘেরা এই পর্যটন শিল্প এনে দিতে পারে অপার সম্ভাবনা। বাংলাদেশের দক্ষিণের এই অঞ্চলটি যেন প্রকৃতির অপূর্ব সৌন্দর্যের আঁচলে ঢাকা। যেখানে পর্যটকরা মুগ্ধ হন, প্রেমে পড়েন শীতল প্রকৃতির এই লীলাভূমিতে।
 
বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার পৌর শহরের ২নং ওয়াডে অবস্থিত,বিষখালী নদী তীরের শহররক্ষা বাঁধ এখন  হয়ে উঠছে অন্যতম দর্শনীয় স্থান,যেমন উপভোগ করা যায় সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের মোহনীয় দৃশ্য। আর অন্যদিকে অকৃত্রিম বনের মাঝে ছড়িয়ে থাকা সবুজের সমারোহ। বিষখালীর বাঁধের পাড়ে দাড়ালে যতদুর চোখ যায় বিশাল সাগরের জলরাশী ছুঁয়ে আসে নির্মল বাতাস,বিকেল নামলে দর্শনার্থীদের সমাগমে মুখরিত হয়ে ওঠে বাঁধের পাড়ের চরাঞ্চল। অতি সহজে মুগ্ধ করে যে কাউকে।বিভিন্ন বয়স ও নানান পেশার মানুষ অবস্থান করে রাত অবধি,নির্মিত ব্লকে বসে  চাঁদের আলো শান্ত নদীতে এক নয়নাভিরাম দৃশ্যের দেখার জন্য।
 
পৌর শহরের ঈমান আলী সড়কের দক্ষিন প্রান্ত থেকে শুরু করে বেরিবাঁধটি যেখানে শেষ হয়েছে তার নাম স্থানীয় ভাবে পুতাভাঙ্গা বলে পরিচিত হলেও, কাগজপত্রে এ নামের কোন তথ্য নেই। নাম গুলো শোভনিও নয় তাই স্থানীয় কিছু প্রবীণ ও সাংবাদিক এর নামকরণ করেছেন নীলিমা পয়েন্ট।
 
পাথরঘাটা পর্যটন পেমিরা বলেন,এখানের প্রকৃতি ও বহমান বাতাস মনে প্রশান্তি এনে দেয়। নীলিমা পয়েন্ট নামকরণ যথার্থ। যথাযথ পরিকল্পনা নিয়ে উন্নয়ন ঘটাতে পারলে এখানে পর্যটন সম্ভাবনা রয়েছে।
 
 
সাংবাদিক' ও কলামিস্ট, হাফেজ খোকন বলেন,
পাথরঘাটায় বেশ কটি পর্যটন কেন্দ্র রয়েছে। তার মধ্যে পাথরঘাটার পৌর শহরের সন্নিকটে নীলিমা পয়েন্ট রয়েছে। যেখানে একদিকে বিষখালী নদীর জলরাশি অন্যদিকে বিস্তৃন ব্লক এবং রয়েছে কেওড়া ও বটগাছ। সারাদিনের কর্মব্যস্ততার মানুষের কিছু টা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলার জায়গা হলো নীলিমা পয়েন্ট। 
 
তিনি আরও বলেন, এখানে অব্যস্থপনা রয়েছে, বখাটের উৎপাত ও রয়েছে। পর্যটকদের আকৃষ্ট করার জন্য নীলিমা পয়েন্টে নতুন নতুন পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানান।
 
উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তফা গোলাম কবির বলেন, নীলিমা পয়েন্টকে  পাথরঘাটা উপজেলার  পৌর শহরের উৎকৃষ্ট আকর্ষন হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করা হবে।

comment / reply_from