• Saturday, 10 December 2022
পাইকগাছায় সু-সাহিত্যিক কাজী ইমদাদুল হকের ১৪১তম জন্ম বার্ষিকী পালিত

পাইকগাছায় সু-সাহিত্যিক কাজী ইমদাদুল হকের ১৪১তম জন্ম বার্ষিকী পালিত

ইমদাদুল হক,পাইকগাছা(খুলনা) প্রতিনিধি: খুলনার পাইকগাছায় সু-সাহিত্যিক কাজী ইমদাদুল হকের ১৪১তম জন্মবার্ষিকী পালিত হয়েছে। নানা কর্মসুচির মধ্যে ছিল সাহিত্যিকের প্রতিকৃতিত্বে পুষ্পমাল্য অর্পন, আলোচনা সভা, পদক, সম্মাননা পত্র, কবিতা আবৃতি ও পুরস্কার প্রদান।

শুক্রবার, সকাল সাড়ে ১০ টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে কাজী ইমদাদুল হক স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও কাজী ইমদাদুল হক স্মৃতি ট্রাস্ট এর সভাপতি মমতাজ বেগম এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আনোয়ার ইকবল মন্টু। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কাজী ইমদাদুল হক স্মৃতি পরিষদের সভাপতি সাংবাদিক প্রকাশ ঘোষ বিধান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, খুলনা প্রেসকাব ও খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়ানের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন মিণ্টু, কাজী পরিবারের সদস্য কাজী জামানউল্লাহ, বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ পাইকগাছা শাখার সভাপতি প্রভাষক মোঃ মোমিন উদ্দীন, সমবায় কর্মকর্তা বেনজীর হোসেন, এস আই সুব্রত দেবনাথ, বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন, নতুন বাজার ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সভাপতি অশোক কুমার ঘোষ। বিশেষ আলোচক ছিলেন, গবেষক ও প্রাবান্ধিক অধ্যাপক বিভুতিভূষণ মন্ডল। বক্তব্য রাখেন, শিক শিব শংকর রায়, কবি পঞ্চানন সরকার, মাধুরী রানি সাধু, মোড়ল কওসার আলী, সুশান্ত বিশ্বাস, রোজি সিদ্দিকী, ফারজানা আক্তার ময়না, অসীম রায়, বিকাশেন্দু সরকার, প্রভারজ্ঞন বিশ্বাস, আব্দুর রাজ্জাক মদিনাবাদী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, শিার্থীসহ এলাকার সুধিজন।

অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধ ও সাংবাকিতায় বিশেষ অবদানের জন্য খুলনা প্রেসক্লাবের ও খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন মিণ্টু এবং গবেষণা ও প্রবন্ধে বিশেষ অবদানের জন্য প্রফেসর বিভুতিভূষণ মন্ডল কে কাজী ইমদাদুল হক স্মৃতি পদক ও সম্মাননা সনদ প্রদান করা হয়েছে। মাধ্যমিক স্কুল পর্যায়ে কাজী ইমদাদুল হকের জীবনী রচনা প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে জুলিয়া আক্তার, যৌথ ভাবে দ্বিতীয় স্থান অধিকার তারিন জামান তমা ও তামান্না আক্তার আখি এবং যৌথ ভাবে তৃতীয় স্থান অধিকার হৃদিতা রায় ও কাজী রুবাইয়া। এছাড়াও রচনা প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণকারী ৬২জন প্রতিযোগী ছাত্র ছাত্রী কে পুরষ্কার প্রদান করা হয়েছে।

উল্লেখ্য কাজী ইমদাদুল হক স্মৃতি পরিষদ ২০০২ সাল থেকে সাহিত্যিকের জন্মদিন ও মৃত্যু দিবস পালন করে আসছে। ২০১৭ সাল থেকে কাজী ইমদাদুল হক স্মৃতি পদক ও সম্মাননা সনদ প্রদান করছে। অনুষ্ঠানে বক্তারা উপমহাদেশের কৃতি সন্তান ও সু-সাহিত্যিক কাজী ইমদাদুল হকের জন্মজয়ন্তী জাতীয়ভাবে পালন, সাহিত্যিকের পৈত্রিক বেদখলীয় জমি উদ্ধার পূর্বক কমপ্লেক্স নির্মাণ ও পাঠ্যপুস্তকে তার জীবনী এবং “আব্দুল্লাহ” উপন্যাস পুনরায় অন্তর্ভূক্ত করার দাবী জানান।

 

comment / reply_from