• Saturday, 10 December 2022

গুলিবিদ্ধ হওয়ার পরে প্রথমবার প্রকাশ্যে যা বললেন ইমরান খান

গুলিবিদ্ধ হওয়ার পরে প্রথমবার প্রকাশ্যে যা বললেন ইমরান খান

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান গুলিবিদ্ধ হওয়ার পরে প্রথমবার প্রকাশ্যে কথা বলেছেন। তিনি নতুনভাবে নির্বাচনের দাবি তুলে পাকিস্তানে ‘গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে’ এর আগে লংমার্চের ডাক দিয়ে মাঠে নেমে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।

বিবিসি জানিয়েছে, ‘গত ২৯ অক্টোবর লাহোর থেকে শুরু হয় এই কর্মসূচি। রাজধানী ইসলামাবাদের পথে চার দিন পর বৃহস্পতিবার পাঞ্জাবের ওয়াজিরাবাদে সমাবেশের জন্য তৈরি হলে সেখানে হয় গুলিবর্ষণ। সেখানে গুলিবিদ্ধ হন ইমরান খান।’

লাহোরের একটি হাসপাতালে হুইলচেয়ারে বসে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, ‘তিনি গুলি থেকে বাঁচতে পারতেন না; যে দুই শ্যুটারকে তিনি দেখেছেন, তারা যদি একযোগে আক্রমণ চালাত।’

ইমরান খান আরও বলেছেন, ‘কারণ- আমি পড়ে গেলাম, আর শ্যুটারদের একজন ধারণা করল আমি মারা গেছি এবং (সে) চলে গেল।’

এরই মধ্যে পাকিস্তানের পুলিশ একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে বলে জানা যায়। ওই ভিডিওতে এক ব্যক্তি স্বীকারোক্তি দিয়েছেন, ‘সাবেক ক্রিকেটার জনগণকে 'বিপথগামী' করছিলেন। এ জন্য তিনি 'ইমরান খানকে হত্যা করতে চেয়েছিলেন'। তবে ওই ব্যক্তি ঠিক কোন পরিস্থিতিতে এই স্বীকারোক্তি দিয়েছেন, তা পরিষ্কারভাবে জানা যায়নি।’

এদিকে, ইমরান খানকে গুলির ঘটনার প্রতিবাদে তার দল পিটিআইয়ের ডাক দেওয়া বিক্ষোভ কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে গত শুক্রবার পাকিস্তানজুড়ে ব্যাপক সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে।

দেশটির গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ‘বড় বড় শহরে ইমরানের সমর্থকরা রাস্তা আটকে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। কোথাও কোথাও পিটিআইয়ের কর্মীরা পুলিশের দিকে ইট-পাথর ছুড়লে পাল্টা পুলিশ তাঁদের লক্ষ্য করে কাঁদানে গ্যাস ছোড়ে; অনেক এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়াধাওয়ির ঘটনাও ঘটেছে।’

কোয়েটায় মনন চকে পিটিআইয়ের বিক্ষোভে পাকিস্তানের পার্লামেন্টের সাবেক ডেপুটি স্পিকার কাশিম সুরি নেতৃত্ব দিয়েছেন বলে জানা গেছে। এখানে বিক্ষোভকারীরা কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধেই স্লোগান দেয়। ইমরানের বিরুদ্ধে হামলার প্রতিবাদে গত শুক্রবার বেলুচিস্তানজুড়ে ধর্মঘট পালিত হয়েছে। কিলা আব্দুল্লা, নুশকি, পাশিন এবং সানজাউয়ি ও অন্যান্য জেলায় দোকানপাট, মার্কেট বন্ধ ছিল বলে সুরি জানিয়েছেন।

ওই দেশটির রাজধানী ইসলামাবাদেও পিটিআইয়ের কর্মী-সমর্থকরা বিক্ষোভ করেছেন। পেশোয়ার টোল প্লাজার কাছে বিক্ষোভে সরকারবিরোধী স্লোগান শোনা যায়। করাচিতে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সমর্থকরা রাস্তা আটকে বিক্ষোভ দেখিয়েছে। পরে, তারা ইনসাফ হাউসের সামনে অবস্থান ধর্মঘটও করে। শেরা ফয়সাল এলাকায় বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশকে কাঁদানে গ্যাসও ছুড়তে হয়। এর জন্য পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) নিয়ন্ত্রিত সিন্ধু সরকার এবং বিলাওয়াল জারদারিকে দায়ী করেছে ইমরানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। -সূত্র : বিবিসি।

comment / reply_from

related_post