Saturday, 26 November 2022
Logo

কোহলির রুমের ভিডিও ফাঁস হওয়ায় ক্ষিপ্ত আনুশকা

কোহলির রুমের ভিডিও ফাঁস হওয়ায় ক্ষিপ্ত আনুশকা

ভারতীয় ক্রিকেটার বিরাট কোহলির হোটেল রুমের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইতোমধ্যে ভাইরাল হয়েছে।ওই ভিডিওটি প্রকাশের পর থেকেই বেশ আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দিয়েছে। ওই ভিডিওটি দেখে খেপেছেন বিরাট কোহলির স্ত্রী আনুশকা শর্মা। এ ব্যাপারে খেপেছেন স্বয়ং কোহলিও।

গত সোমবার (৩১ অক্টোবর) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করে বিরাটের স্ত্রী অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা বলেন, ‘এভাবে কেউ কী করে কারো প্রাইভেট স্পেসের ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দিতে পারে? এটা অমানবিক!’

টি টোয়েন্টি ওয়ার্ল্ড কাপ খেলতে এই মুহূর্তে ভারতীয় ক্রিকেট দলের সাথে অস্ট্রেলিয়ায় রয়েছেন বিরাট কোহলি। সেখানে হোটেল রুমে বিরাটের অনুপস্থিতিতে প্রবেশ করে কেউ একটি ভিডিও শুট করেছেন। ওই ভিডিওতে বিরাটের রুমের দৃশ্য দেখানো হয়েছে। বিরাটের জিনিসপত্র, এমনকি
তার বাথরুম পর্যন্ত তুলে ধরা হয়েছে ভিডিওটিতে। এভাবে ব্যক্তিগত ছবি ইন্টারনেটে তুলে ধরার বিরুদ্ধেই সরব হয়েছেন বিরাট কোহলি এবং আনুশকা শর্মা।

বিরাটের স্ত্রী আনুশকা তাঁর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে ভিডিওর কিছু অংশ শেয়ার করে লিখেছেন, ‘ব্যক্তিগত পরিসরের ভিডিও তুলে ধরার অভিজ্ঞতার মুখে আগেও পড়েছি, যেখানে ফ্যানরা কোনো সহানুভূতি বা করুণা দেখায়নি। কিন্তু এটা সেই অভিজ্ঞতার থেকেও খারাপ। খুবই অসভ্যতা ও অমানবিক এবং যে এই ভিডিও দেখবে সে এটাই বলবে যে তারকাদের ক্ষেত্রে এ রকম হবেই। তাদের জানা উচিত যে তারাও এই সমস্যার অংশ আর এটা তাদেরও বেডরুম হতে পারে। তাহলে এর শেষ কোথায়?’

কোনো এক পাপারাৎসির তোলা ভিডিওটি ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আবার ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওটি প্রকাশের পর অনেকেই বিরাট এবং আনুশকার পাশে দাঁড়িয়েছেন। কমেন্ট বক্সে অনেক ভক্তরা এই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে তুলে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। এক নেটিজেন লিখেছেন, ‘এটা খুবই নিম্ন রুচির পরিচয়। ’ অনেকেই হোটেলের বিরুদ্ধে মামলার কথা লিখেছেন। এক নেটিজেন লিখেছেন, ‘ম্যানেজারের চাকরি গেল, এটা খুবই জঘন্য। ’ অন্য এক ব্যক্তি লিখেছেন, ‘এভাবে কারো ব্যক্তিগত জায়গায় অনধিকার প্রবেশ মেনে নেওয়া যায় না। সে কোনো তারকা হোক কিংবা কোনো সাধারণ মানুষ।’

ভিডিওটি শেয়ার করে নিজের ক্ষোভ জানিয়েছেন বিরাট কোহেলি নিজেও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি লিখেছেন, ‘আমি বুঝি যে, ফ্যানরা তাদের প্রিয় তারকাদের দেখলে উচ্ছ্বসিত হয়ে পড়ে। তাদের সঙ্গে দেখা করার জন্য মুখিয়ে থাকে। এ বিষয়টি নিয়ে আমি সব সময় প্রশংসা করেছি। কিন্তু এই ভিডিও সাংঘাতিক। আমার প্রাইভেসি নিয়ে আমি ভীত। যদি আমি নিজের হোটেল রুমেই কোনো ব্যক্তিগত নিরাপত্তা না পাই, তাহলে সেটা আমি কোথায় প্রত্যাশা করতে পারি? এ রকম পাগলামি আর ব্যক্তিগত পরিসর ভেঙে দেওয়া আমার কাছে সঠিক মনে হচ্ছে না। দয়া করে মানুষের গোপনীয়তাকে সম্মান করতে শিখুন। তাদের বিনোদনের পণ্য ভাববেন না।’

এর আগেও মেয়ে ভামিকার ছবি ভাইরাল হওয়ার সময় প্রাইভেসি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন আনুশকা এবং বিরাট। বরাবরই নিজেদের ব্যক্তিগত জীবন ক্যামেরার পেছনে রাখতেই ভালোবাসেন জনপ্রিয় এই তারকা দম্পতি। -সূত্র : জি নিউজ ইন্ডিয়া।

comment / reply_from