• Tuesday, 06 December 2022
কৃষকের প্রণোদনার ১০ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ  উঠেছে পবা উপজেলা কৃষি অফিসারের বিরুদ্ধে

কৃষকের প্রণোদনার ১০ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে পবা উপজেলা কৃষি অফিসারের বিরুদ্ধে

কৃষকের প্রণোদনার ১০ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ  উঠেছে পবা উপজেলা কৃষি অফিসারের বিরুদ্ধে
 
আতিকুর রহমান পবা উপজেলা প্রতিনিধি,
 
২০২১-২২ অর্থবছরে খরিপ/ ২০২১-২২ মৌসুমে গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজ ও ২০২২-২৩ অর্থ বছরে গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজ প্রনোদনার উপকরণ (পলিথিন, বালাই নাশক ও  লাইলন  সুতলি)  দূর্নীতি  করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে মোঃ শফিকুল ইসলাম উপজেলা কৃষি অফিসার, পবা, রাজশাহীর  বিরুদ্ধে। 
 
গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজের প্রনোদনার প্রকল্পের উপকরণ বিনামূল্যে প্রথম পর্যায়ে ২৭০ দ্বিতীয় পর্যায়ে ২৫০ সর্বমোট ৫২০ জন কৃষকের মাঝে বিতরণ করা হয় চারা উৎপাদন কৃষক প্রতি ৫২৪৯ টাকা এর মধ্যে বিকাশের মাধ্যমে ২৮০০ টাকা প্রতি কৃষকের একাউন্টে প্রদান করার কথা থাকলেও  এর মধ্যে কিছু লোক এখনও বিকাশে টাকা পায় নাই। 
 
অনুসন্ধানী তথ্যে কৃষকের সাক্ষাৎকারে তারা জানান বাকি ২৪৪৯ টাকার মধ্যে পলিথিন বাবদ ২১০০ টাকা বালাইনাশক বাবদ ১০০টাকা লায়লন সুতলি বাবদ দেড়শ টাকা অন্যান্য খরচ বাবদ ১৪৪ টাকা ভাউচার প্রদান করেন। পলিথিন সরজমিনে দেখা যায়, কৃষকরা পেয়েছেন ৫০০ টাকার পলিথিন, বালাই নাশক ৮০ টাকা, সুতলি ১৫ টাকা করে তিনটি প্লাস্টিকের দড়ি দেয়া হয় ৪৫ টাকা, প্রতি কৃষকের প্রনোদনার টাকা আত্মসাৎ করেন ১৮৬৯ টাকা, ৫২০ জন কৃষকের সর্বমোট ১৮৬৯× ৫২০= ৯,৭১,৮৮০/- ( নয় লক্ষ একাত্তর হাজার আটশত আশি) টাকা। উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ শফিকুল ইসলাম আত্মসাৎ করেন। 
 
যেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে দারিদ্র্য ও অসহায় কৃষকের
প্রণোদনার ব্যবস্থা করেছেন মাননীয় প্রধানমন্রী  সেই প্রণোদনার বরাদ্দ অর্থ আত্মসাৎ করেন পবা উপজেলা অফিসার মোঃ শফিকুল ইসলাম। কৃষকদের প্রণোদনার সঠিক ভাবে বন্টন না করে টাকা আত্মসাৎ করেছেন অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে কৃষি অফিসারের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি কথা বলার জন্য আগ্রহী নন শুধু বলেন এটা বিতরণ হয়েছে একটি নির্দিষ্ট কমিটির মাধ্যমে ভুল হলে হতে পারে যদি হয় তবে তা সংশোধন করা হবে বলে আশ্বাস দেন তবে তা কতটুকু সত্য এখন সেটাই দেখার বিষয়।
 
অপরদিকে দিশেহারা অসহায় ও দরিদ্র কৃষকের অর্থ আত্মসাৎ কারী এদের তদন্ত গ্রহণ করে সঠিক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার ( ইউ এন ও) বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন কৃষক বিন্দ

comment / reply_from