• Tuesday, 06 December 2022
আনোয়ারা চাতরী চৌমুহনীতে হঠাৎ আগুনের সুত্রপাত

আনোয়ারা চাতরী চৌমুহনীতে হঠাৎ আগুনের সুত্রপাত

রানা সাত্তার,চট্টগ্রামঃ
 
আনোয়ারার অন্যতম প্রধান বানিজ্যিক কেন্দ্র চাতরী চৌমুহনী বাজারে  ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে একটি বেসরকারি ব্যাংকের শাখা, রেস্টুরেন্টসহ ১০টি দোকান সম্পূর্ণভাবে  ভস্মীভূত হয়ে যায়। 
 
গত রোববার দিবাগত রাত ১২টার দিকে উপজেলার চৌমুহনী বাজারের ভোজন বাড়ী রেস্টুরেন্টে ভবনে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।এতে আনুমানিক অর্ধ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা। এরই মধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসন । 
 
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান , গত রাত ১২টার দিকে ভোজন বাড়ি রেস্টুরেন্টের নিচে একটি চায়ের দোকানের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এর পর আগুন ছড়িয়ে পড়ে পাশের দোকান ও তিনতলা ভবনে। এই ভবনে ভোজন বাড়ি রেস্টুরেন্টে ও বেসরকারি এবি ব্যাংক লিমিটেডের একটি শাখাও রয়েছে। এ ছাড়া নিচে গ্যাস সিলিন্ডারের দোকান, স্বর্ণের দোকানসহ ২০টি দোকান রয়েছে। আগুনে ১০টি দোকান সম্পূর্ণ ও ১০টি দোকান আংশিক ক্ষতি হয়।
 
ভোজন বাড়ি রেস্টুরেন্টে ও এবি ব্যাংক ছাড়াও ক্ষতিগ্রস্ত দোকান মালিকরা হলেন মো. মোজাম্মেল, নাছির উদ্দিন, আবদুল জলিল মো. দিদার, ফারুক সাওদাগর, মো. কায়সার, মো. শাহেদ ও মো. মনির।
 
এদিকে আগুন লাগার পর নিয়ন্ত্রণে প্রথমে স্থানীয়রা ও পরে ফায়ার সার্ভিসের আনোয়ারা, সিইউএফএল, পটিয়া ও বাঁশখালীর পাঁচটি ইউনিট কাজ করে। এ সময় এবি ব্যাংকের নৈশপ্রহরীকে অনেক চেষ্টার পর জীবিত উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা। আগুনে আনুমানিক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণে তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।
 
এবি ব্যাংকের ম্যানেজার মো. ফারহান বলেন, আগুনে ব্যাংকের কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে, তার তদন্ত চলছে।
 
আনোয়ারা ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ বেলাল হোসেন বলেন, আগুনের ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসের ৫ টি টিম তিন ঘন্টার  চেষ্ঠায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ নির্নয়ে তদন্ত চলছে।

comment / reply_from